ডেস্ক : অন্তঃস্বত্তা মুন্নী আক্তার পিংকি (২৫) নামের গৃহবধূকে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ স্বামী সোহরাব হোসেন সৌরভকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঝিনাইদহ শহরের পুরাতন হাটখোলা এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটেছে। শনিবার রাতে ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় পিংকীর মৃত্যু হয়।

নিহতের মা কাজল বেগম জানান, ঝিনাইদহ শহরের পুরাতন হাটখোলার পিংকীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন সময় তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষণ করতো সৌরভ। গত ৯ সেপ্টেম্বর মেয়ের বাড়িতে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় পিকিং ঝিনাইদহ সদর থানায় মামলা করলে পুলিশ সৌরভকে গ্রেফতার করে। পরে মিমাংসার পর সৌরভ পিংকিকে বিয়ে করেন। বিয়ের পর থেকে সৌরভের পরিবার পিংকিকে মেনে নিচ্ছিলো না। এমনকি বিবাহবিচ্ছেদের চাপ দিয়ে প্রায়শই তাকে শারীরিক নির্যাতন করা হতো।

এরই জের ধরে গত ১৬ ফেব্রুয়ারি পিংকির বাবার বাড়িতে এসে ২ হাজার টাকা চায় সৌরভ। পিংকি টাকা দিতে অস্বীকার করলে মারপিট করে কেরোসিন ঢেলে গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। তাকে উদ্ধার করে প্রথমে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়।

সেখানেই শনিবার রাতে পিংকি মারা যায়। এ ঘটনায় নিহতের মা কাজল বেগম থানায় মামলা করলে পুলিশ সৌরভকে গ্রেফতার করেছে।

এ ব্যাপারে ঝিনাইদহের পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামান জানান, পারিবারিক কলজের জের ধরে এ ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। অভিযুক্ত সৌরভ হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।