ডেস্ক : ‘শাহেনশাহ’ খ্যাত অমিতাভ বচ্চনের বড় ছেলে অভিষেক বচ্চনের সঙ্গে ২০০৭ সালে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন সাবেক বিশ্বসুন্দরী ঐশ্বরিয়া রায়। এবার এ জুটির আয় নিয়ে সংবাদমাধ্যমে আলোচনায় এসেছেন তারা।

ভারতের আনন্দবাজার পত্রিকা জানায়, ২০১১ সালে অভিষেক এবং ঐশ্বরিয়ার কোলজুড়ে আসে মেয়ে আরাধ্য। এরপর থেকে আরাধ্যাই তাদের জীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশ হয়ে উঠে।

২০১৯ সালে রিপাবলিক ওয়ার্ল্ড-এ প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, অভিষেক বচ্চনের সম্পত্তির পরিমাণ ২০০ কোটি রুপি। আর ফিনঅ্যাপ.কো.ইন অনুযায়ী, অভিষেক বচ্চনের সম্পত্তির পরিমাণ ২০৬ কোটি রুপি এবং তার বার্ষিক আয় ২০ কোটি রুপি।

এদিকে ২০১৯ সালে টাইমস নাও প্রকাশিত তথ্য বলছে, এই সম্পত্তির বাইরে অভিষেকের একটা জাগুয়ার এক্সজে, মার্সিডিজ এস৫০০, বেন্টলে সিজিটি, রেঞ্জ রোভার ভোগ এবং মুম্বাইয়ের বান্দ্রায় একটা বিলাসবহুল অ্যাপার্টমেন্ট আছে।

অন্যদিকে ঐশ্বরিয়া একজন মডেল হিসাবে নিজের ক্যারিয়ার তৈরি করেছিলেন। ১৯৯৪ সালে ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ খেতাবে ভূষিত হন তিনি। তার পর তার ক্যারিয়ার গ্রাফ ক্রমশ উপরের দিকে উঠেছে। বিশ্বব্যাপী একজন প্রভাবশালী তারকায় পরিণত হন তিনি।

২০০৯ সালে ভারত সরকার তাকে পদ্মশ্রী সম্মানে ভূষিত করে। ঐশ্বরিয়ায় প্রথম ভারতীয় অভিনেত্রী, যিনি ২০০৩ সালে কান ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে জুরি সদস্য হয়েছিলেন। টাইমস নাও-এর রিপোর্ট অনুযায়ী, ঐশ্বর্যার মোট সম্পত্তির পরিমাণ ২৫৮ কোটি টাকা। আর তার বার্ষিক আয় ১৫ কোটি রুপি।

এ ছাড়া ঐশ্বরিয়ার আঙুলে শোভা পেয়েছে ৭০ লাখ রুপির আংটি। এর পাশাপাশি আছে একটা মার্সিডিজ এস৫০০, বেন্টলে সিজিটি। এর বাইরে দুবাইয়ে স্যা‌চুয়ারি ফলস‌্-এ একটি ভিলা এবং মুম্বাইয়ের বান্দ্রায় একটা অ্যাপার্টমেন্ট রয়ে।

সবমিলিয়ে অভিষেক ও ঐশ্বরিয়ার মোট সম্পত্তির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে প্রায় ৫০০ কোটি রুপি।