ডেস্ক : কাশেম সোলায়মানি হত্যার বদলা নিতে ইরাকের দুটি মার্কিন সামরিক ঘাঁটিতে ইরানের দুই দফায় ২২টি ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ৩৪ সেনা মস্তিষ্কে আঘাতজনিত সমস্যায় ভুগছেন বলে স্বীকার করেছে যুক্তরাষ্ট্র। তাদের মধ্যে এখনো ১৭ জন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন, বাকিরা হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন। মার্কিন প্রতিরক্ষা দপ্তর পেন্টাগনের একজন মুখপাত্রের বরাত দিয়ে বিবিসির এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য উল্লেখ করা হয়েছে। চিকিৎসকরা মস্তিষ্কে আঘাতপ্রাপ্ত সেনাদের সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছেন বলে জানান তিনি।

ইরানি ওই হামলায় কোনো মার্কিন সেনা হতাহত হয়নি বলে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প দাবি করলেও এখন উল্টো খবর প্রকাশ পাচ্ছে। বিভিন্ন গণমাধ্যমে হামলায় হতাহতের নানা সংখ্যা উঠে আসলে গত সপ্তাহে পেন্টাগন স্বীকার করেছিল, হামলার কারণে তাদের ১১ সেনা মস্তিষ্কে আঘাতজনিত সমস্যার চিকিৎসা নিচ্ছেন। তবে কেউ মারা যাননি।

সর্বশেষ গতকাল শুক্রবার মার্কিন প্রতিরক্ষা বিভাগের মুখপাত্র জোনাথন হোফম্যান জানান, ৩৪ জনের মধ্যে ১৭ জন সেনা এখনো মস্তিষ্কে আঘাতজনিত সমস্যায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এর মধ্যে ৮ জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য যুক্তরাষ্ট্রে পাঠানো হয়েছে, ৯ জন জার্মানিতে, ১৬ সেনা ইরাকে ও একজন কুয়েতে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

প্রসঙ্গত, গত ৩ জানুয়ারি ইরানের প্রভাবশালী কমান্ডার জেনারেল কাশেম সোলায়মানিকে ইরাকের বাগদাদের একটি বিমানবন্দরের কাছে ড্রোন হামলা চালিয়ে হত্যা করে মার্কিন বাহিনী। এর বদলা নিতে গত ৮ জানুয়ারি ইরাকে থাকা জোড়া মার্কিন ঘাঁটিতে হামলা চালায় ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী। একই সময় ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে ইউক্রেনের যাত্রীবাহী বিমানটি ভূপাতিত হয়।