ডেস্ক : মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ এবং সৌদি যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন সালমানকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে ইয়েমেনের একটি আদালত। এ ছাড়া মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তের তালিকায় আরো ৭ জন রয়েছেন।
বোমা মেরে শিশু হত্যার দায়ে ইয়েমেনের একটি আদালত তাদের এই দণ্ড দিয়েছে বলে জানা গেছে।

দেশটির বিচারক রিয়াদ আর রাজামির নেতৃত্বাধীন আদালত এই হামলার পেছনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পসহ ১০ জনের সম্পৃক্ততার বিষয়ে নিশ্চিত হতে পেরেছে বলে জানানো হয়েছে।

পার্সটুডের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, উল্লিখিত তিন জন ছাড়াও মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে রয়েছেন সৌদি প্রিন্স তুর্কি বিন বান্দার বিন আব্দুল আজিজ, যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেমস মেটিস, ইয়েমেনের সাবেক প্রেসিডেন্ট আব্দুর রাবু মানসুর হাদি। এ ছাড়া রায়ে হতাহত শিশুদের পরিবারকে ১ হাজার কোটি ডলার জরিমানা পরিশোধ করার নির্দেশও দিয়েছেন বিচারক।

প্রসঙ্গত, ইয়েমেনের সা’দা প্রদেশের যাহিয়ান শহরে ২০১৮ সালের ৯ অক্টোবর স্কুল বাসে বোমা হামলা চালায় সৌদি নেতৃত্বাধীন বাহিনী। এতে ৫৫ শিশু নিহত হয়। সেইসঙ্গে আহত হয় অন্তত ৭৭ শিশু।

স্কুল পড়ুয়া শিশুদের বাসে বোমা হামলার পর এটিকে সামরিক পদক্ষেপ ও বৈধ বলে মন্তব্য করেন সৌদি নেতৃত্বাধীন বাহিনীর মুখপাত্র তুর্কি আল মালিকি।

উল্লেখ্য, সৌদি আরবের নেতৃত্বে সংযুক্ত আরব আমিরাতসহ কয়েকটি দেশ ২০১৫ সাল থেকে ইয়েমেনের হুথি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ চালিয়ে আসছে। আর এতে সরাসরি সমর্থন দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রসহ কয়েকটি দেশ।

যৌথ বাহিনীর দীর্ঘ দিনের হামলা ও অবরোধের কারণে ইতোমধ্যে ১৪ হাজারের বেশি ইয়েমেনি নিহত হয়েছেন। সেইসঙ্গে আহত ও উদ্বাস্তু হয়েছেন লাখ লাখ মানুষ। দেশটিতে একাধিকবার দুর্ভিক্ষের শঙ্কা প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ।