উপজেলা নির্বাচন একদলীয়: বি চৌধুরী

 

সংসদ নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক হলেও উপজেলা নির্বাচন একদলীয় হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন যুক্তফ্রন্টের চেয়ারম্যান ও বিকল্পধারা বাংলাদেশের সভাপতি এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী। তিনি বলেন, এই নির্বাচনে প্রতিযোগিতা ছিল এক দলের মধ্যে সীমাবদ্ধ। ভোটকেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি ছিল খুবই কম। ভোটাররা ভোটবিমুখ হলে গণতান্ত্রিক ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত হয়ে পড়বে।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে যুক্তফ্রন্টের শরিক দল বাংলাদেশ শরীয়াহ আন্দোলনের দ্বিতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও স্বাধীনতাদিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় এ কথা বলেন বি চৌধুরী। তিনি বলেন, বিরোধী দলকে রাজনীতি করার সুযোগ দিতে হবে। কারণ বিরোধী দল ছাড়া গণতন্ত্র সম্পূর্ণ হয় না। তাদের সমান সুযোগ-সুবিধা দিতে হবে। আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে অংশগ্রহণমূলক করার জন্য সব রাজনৈতিক দলকে অংশ নেওয়ার আহ্বানও জানান তিনি।

 

যুক্তফ্রন্টের চেয়ারম্যান বলেন, বঙ্গবন্ধুর প্রধান শপথ ছিল গণতান্ত্রিক দেশ গড়ার, মানুষের ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠার। এখন ভোটদানের অধিকার আছে কি না, সেটা ভাবনার বিষয়। নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা জানিয়ে এ ঘটনাকে বর্ণবাদী শ্বেতাঙ্গ সন্ত্রাস হিসেবেও অভিহিত করেন তিনি।

বাসচাপায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আবরার আহমেদ চৌধুরীর ঘটনাকে হত্যাকাণ্ড উল্লেখ করে সাবেক এই রাষ্ট্রপতি বলেন, দেশে আইন থাকলেও প্রয়োগ নেই, অবিলম্বে এই অবস্থার অবসান করতে হবে। আইনের প্রয়োগ নিশ্চিত না হলে দেশে সুশাসন থাকবে না। অবিলম্বে প্রচলিত আইন প্রয়োগের মাধ্যমে ছাত্রসহ পথচারী হত্যাকারী চালকদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

বাংলাদেশ শরীয়াহ আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা আমির মুহম্মদ মাসুম বিল্লাহর সভাপতিত্বে এবং সংগঠনটির আমির শাহাদাত হোসাইনের সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন যুক্তফ্রন্টের প্রধান সমন্বয়ক গোলাম সারোয়ার মিলন, বিএলডিপির চেয়ারম্যান নাজিম উদ্দিন আল আজাদ প্রমুখ।