ডেস্ক : ১৯৪৭ এর দেশভাগের পর থেকে ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধ পর্যন্ত সময়কালে পাকিস্তানিরা বাংলাদেশিদের ওপর যে শোষণ ও গণহত্যা চালিয়েছে তা ভুল ছিল বলে স্বীকার করেছেন পাকিস্তানের পরমাণু বিজ্ঞানী পারভেজ আমিরালি হুদভয়। রোববার করাচিতে ‘আদাব ফেস্টিভ্যাল’ শীর্ষক সাহিত্য উৎসবে অংশ নিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

পারভেজ আমিরালি হুদভয় বলেন, পাকিস্তান সবসময় বাংলাদেশিদের বঞ্চিত করেছে। তাদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার ও শোষণ করা হয়েছে। মুক্তিযুদ্ধের সময় গণহত্যা চালানো হয়েছে। মূলত পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠীর এমন আচরণের প্রধান কারণ ছিল বর্ণবাদী মনোভাব। তারা বাঙালিদের নিচু জাতি বলে মনে করতো।

‘এই সত্যটা গত ৭৩ বছর ধরে আমরা নিজেদের কাছেই লুকিয়ে রেখেছিলাম। সে সময় আমরা এ ব্যাপারে মিথ্যা ভেবেছিলাম, আজও সেই মিথ্যা নিয়ে বেঁচে আছি, যোগ করেন তিনি।’

এ সময় পাকিস্তানের জাতির জনক মোহাম্মদ আলী জিন্নাহর সমালোচনা করে এই পরমাণু বিজ্ঞানী বলেন, রাষ্ট্রের প্রকৃত লক্ষ্য এবং আদর্শ স্থির করা নিয়ে তার মধ্যে সংশয় ছিল। কারণ সে নিজে দ্বিধাগ্রস্ত ব্যক্তি ছিলেন। তাই আজও পাকিস্তানে সংশয় ও শঙ্কার পরিবেশ বিরাজ করছে।

জিন্নাহর দ্বিজাতি তত্ত্বের সমালোচনা করে তিনি বলেন, সে সময় তিনি দ্বিজাতি তত্ত্বের ভিত্তিতে পাকিস্তান রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। যার কারণে উপমহাদেশে চির বৈরী দুটি দেশের জন্ম হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ৬৯ বছর বয়সী পারভেজ হুদভয় একাধারে বিজ্ঞানী, সামরিক বিশেষজ্ঞ, লেখক এবং মানবাধিকার কর্মী। পাকিস্তানে মৌলবাদ বিরোধিতা, বাক-স্বাধীনতা, অসাম্প্রদায়িকতা এবং আধুনিক শিক্ষা প্রসারের স্বপক্ষে তিনি কাজ করেন।