সাব্বির হাসান, গাবতলী (বগুড়া) প্রতিনিধি ঃ বগুড়ার গাবতলীতে জননেত্রী শেখ হাসিনা পরিষদ মহিষাবান ইউনিয়ন শাখার আহবায়ক রেজওয়ান কবির (২৮) কে রাজনৈতিক বিরোধের জের ধরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষরা। আহত রেজওয়ান কবির এখন বগুড়া শজিমেক হাসাপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। গত ৯ডিসেম্বর উপজেলার মহিষাবান ইউনিয়নের ধর্মগাছা গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।
জানা গেছে, গাবতলীর মহিষাবান ইউনিয়নের ধর্মগাছা গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে জননেত্রী শেখ হাসিনা পরিষদ মহিষাবান ইউনিয়ন শাখার আহবায়ক রেজওয়ান কবির এর সঙ্গে একই গ্রামের মৃত আমজাদ ফকিরের ছেলে দৌলতুজ্জামানসহ বেশ কয়েক জনের রাজনৈতিক বিষয় নিয়ে দীর্ঘদিনের বিরোধ ছিল। এরই জের ধরে গত ৯ডিসেম্বর রাত পৌনে ৯টায় কাজ শেষে বাড়ী ফেরার পথে পেরীরহাট চারমাথায় পৌঁছালে পূর্বে ঔত পেতে থাকা প্রতিপক্ষরা রামদা, চাকু ও আগ্নেয়াস্ত্রের মুখে জিম্মি করে পার্শ¦বর্তী নিচু জমিতে নিয়ে যায়। সেখানে তার পড়নের জ্যাকেট খুলে দুই হাত বেঁধে রামদা দিয়ে মাথা, হাত ও দু’পায়ে এলোপাতারী কুপিয়ে গুরুত্বর জখম করে মৃত ভেবে প্রতিপক্ষরা চলে যায়। স্থানীয়রা রেজোয়ানের গোঙানীর শব্দ পেয়ে উদ্ধার করে বগুড়া শজিমেক হাসাপাতালে ভর্তি করিয়ে দেয়। এ ঘটনায় রেজওয়ানের স্ত্রী আরজিনা বেগম বাদী হয়ে গত ১২ডিসেম্বর দৌলতুজ্জামানকে প্রধান করে ৬জনের নাম উল্লেখ করে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এ ব্যাপারে মামলার আইও থানার ওসি (অপারেশন) লাল মিয়া মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে স্থানীয় সাংবাদিকদের বলেন, অভিযুক্তদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।