গাবতলী (বগুড়া) প্রতিনিধি ঃ বগুড়ার গাবতলীতে ভাসুরের মারপিটে গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে ছোটভাইয়ের বউ সাবিনা বেগম (২৮)। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করা হলে গত চারদিনের কাউকে আটক করতে পারেনি দায়িত্বপ্রাপ্ত অফিসার নয়ন কৃষ্ণ হোড়।
অভিযোগসূত্রে জানা গেছে, গাবতলী উপজেলার নেপালতলী ইউনিয়নের কদমতলী গ্রামের অমিজ উদ্দিনের কাছ থেকে তারই সহোদর বড়ভাই ইসমাইল প্রাং ৫০হাজার টাকায় আড়াই শতক জমি ক্রয় করে। গত ২৪ডিসেম্বর দুপুরে ক্রয়কৃত ওই জমির দখল নিতে গেলে অমিজ উদ্দিন ও তার ছেলে সারোয়ার হোসেন এবং ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী ছলেমান ও সবুজ লাঠিসোটা নিয়ে অতর্কিতভাবে হামলা চালায়। হামলাকারীরা ইসমাইল প্রামানিককে না পেয়ে তার স্ত্রী সাবিনা বেগমকে সারা শরীরে বেদমভাবে মারপিটে গুরুত্বর জখম করে। গুরুতর আহত সাবিনা এখন আশঙ্কাজনক অবস্থায় গাবতলী হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন। এ ঘটনায় ওই দিনই ভিকটিমের স্বামী ইসমাইল প্রাং বাদী হয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। এ প্রসঙ্গে অভিযোগের তদন্তকারী এএসআই নয়নের সঙ্গে কথা বলা হলে তিনি স্থানীয় সাংবাদিকদের জানান, বিষয়টি একদম নরমাল। মহিলাটির শরীরে ফোলা ও জখম হয়েছেমাত্র। অভিযোগটি মামলায় রুপান্তরিত করলে বাদীপক্ষ আশানুরুপ কোন রেজাল্ট পাবে না বলে মন্তব্য করেন।