নোতুন খবর.কম :
কৃষক-ক্ষেতমজুরসহ গ্রামাঞ্চলের মানুষের করোনা টেষ্ট এবং চিকিৎসার পর্যাপ্ত আয়োজন নিশ্চিত করার দাবিতে-সমাজতান্ত্রিক ক্ষেতমজুর ও কৃষক ফ্রন্ট এর কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশহিসাবে বগুড়া জেলা শাখার উদ্যোগে রবিবার বেলা সাড়ে ১১ টায় সাতমাথায় মানববন্ধন-সমাবেশ ও সিভিল সার্জনের মাধ্যমে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পেশ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের জেলা সভাপতি বাসদ বগুড়া জেলা আহ্বায়ক কমরেড এ্যাড.সাইফুল ইসলাম পল্টু, বক্তব্য রাখেন বাসদ বগুড়া জেলা সদস্যসচিব সাইফুজ্জামান টুটুল, সমাজতান্ত্রিক ক্ষেতমজুর ও কৃষক ফ্রন্ট বগুড়া জেলা সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম প্রমূখ নেতৃবৃন্দ।
নেতৃবৃন্দ বলেন, স্বাস্থ্য খাতের যে বেহাল দশা এই করোনা ভাইরাস উন্মোচন করেছে তা আজ সবার সামনে স্পষ্ট। একটি বিভাগীয় শহরেও পর্যাপ্ত আইসিইউ নাই। টেস্টিং যে পর্যাপ্ত না তা আমরা দেখছি। আর আজ পুরো বিশ্ব তাকিয়ে আছে এই ভাইরাসের ভ্যাকসিন কত দ্রুত সময়ে সম্পন্ন করা যায় তার উপর। আমাদের দেশের সকল মানুষ যাতে বিনামূল্যে এই ভ্যাকসিন পায় তাও নিশ্চিত করা একটি বড় চ্যালেঞ্জ। কিন্তু বরাবরের মতই বাণিজ্যিক খাতে মুনাফা তৈরির জন্যই এই ভ্যাকসিনকে উন্মুক্ত করে দেওয়া হলে, বহু প্রাণ ঝড়ে যাবে এই ভাইরাসের কারণে। দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে দাঁড়িয়ে রাষ্ট্র যদি এই উপলব্ধিকে পৌঁছাতে না পারে, তাহলে আমাদের কষ্টার্যিত স্বাধীনতার আর কোন অর্থ থাকবে না। তাই নেতৃবৃন্দ অনতিবিলম্বে জরুরী ভিত্তিতে গ্রাম পর্যায়ে করোনা পরীক্ষার ব্যবস্থা করা, যুদ্ধকালীন পরিস্থিতি বিবেচনা করে উপজেলা/ইউনিয়ন পর্যায়ে সেনাবাহিনীর মেডিকেল কোরের সহায়তায় করোনা চিকিৎসার জন্য ফিল্ড হাসপাতাল স্থাপন করা, গ্রমের প্রাপ্তবয়স্ক কৃষক ক্ষেতমজুরসহ সকলকে দ্রুত টিকা দেয়ার ব্যবস্থাা করা, হাসপাতালসমূহে শয্যাসংখ্যা, হাই ফ্লো নেজাল ক্যানুলা, আই সি ইউ বেডসহ চিকিৎসা পরিধি বাড়াও; পর্যাপ্ত দক্ষ জনবল নিয়োগ দাও; কেন্দ্রিয় অক্সিজেন সরবরাহ ব্যবস্থা নিশ্চিত করা; স্বাস্থ্য খাতে দুর্নীতি বন্ধ করা, শ্রমজীবী দরিদ্রদের এক মাসের খাদ্য ও নগদ ৫ হাজার টাকা সহায়তা প্রদান করা; কার্যকর লকডাউন, দৈনিক কমপক্ষে ১লক্ষ করোনা টেষ্ট, কন্ট্রাক্ট ট্রেসিং ও আইসোলেশনের ব্যবস্থা করা, বিনামূল্যে সকল নাগরিকের করোনা চিকিৎসা নিশ্চিত করা; করোনায় মৃত্যুবরণকারীদের পরিবারকে রাষ্ট্রীয় ভাবে ক্ষতিপূরণ দেয়ার জোর দাবি জানান।