ডেস্ক : ঘূর্ণিঝড়ের বাতাসে ধাক্কা খেয়ে নির্ধারিত সময় থেকে প্রায় ৮০ মিনিট আগে পৌঁছাল নিউ ইয়র্ক থেকে লন্ডনের উদ্দেশ্যে আসা ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের একটি সাবসনিক বিমান। রোববার এ বিষয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে ব্রিটিশ দৈনিক ইনডিপেনডেন্ট।

গণমাধ্যমটি জানায়, নিউইয়র্কের স্থানীয় সময় শনিবার বোয়িং ৭৪৭ বিমানটি লন্ডনের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করে। লন্ডনের কাছে এলে বিমানটি ঘূর্ণিঝড় সিয়েরার কবলে পড়ে। ঘূর্ণিঝড়টির বাতাসের বেগ ছিল প্রায় ২০০ মাইল প্রতি ঘণ্টা। দ্রুত গতির এই বাতাস বিমানটিকে পেছন থেকে ধাক্কা দিলে এর গতি বেড়ে যায়। ফলে নির্ধারিত সময়ের প্রায় ৮০ মিনিট আগে লন্ডনে অবতরণ করে ফ্লাইটটি।

এ প্রসঙ্গে সিএনএনের জেষ্ঠ্য আবহাওয়াবিদ ব্র্যান্ডন মিলার বলেন, ঘূর্ণিঝড়ের মধ্যে পড়ার পর শক্তিশালী বাতাস বিমানটিকে সামনের দিকে ঠেলেছে।

ইনডিপেনডেন্ট আরো জানায়, গড়পরতায় নিউইয়র্ক থেকে লন্ডন আসতে একটি সাবসনিক বিমানের ৬ ঘণ্টা ১৩ মিনিট সময় লাগে। বোয়িং ৭৪৭ বিমানটির লেগেছে ৪ ঘণ্টা ৫৬ মিনিট। এত দ্রুত আর কোনো বেসামরিক বিমান আটলান্টিক অতিক্রম করতে পারেনি। এটি এখন নতুন রেকর্ড। এ সময় বিমানটির সর্বোচ্চ গতি হয়েছিল ১ হাজার ২৮৭ কিলোমিটার।

আগের রেকর্ডটি ছিল ভার্জিন এয়ারওয়েজের একটি এ৩৫০ বিমানের। ওই বিমানটিও সাবসনিক ছিল। নিউইয়র্ক থেকে লন্ডন পৌঁছাতে এর সময় লেগেছিল ৫ ঘণ্টা ১৩ মিনিট।