ডেস্ক : চায়ের নেশা কম-বেশি সকল মানুষেরই রয়েছে। সকালে ঘুম থেকে উঠে এক কাপ চা পান না করতে পরলে তো অনেকের দিনই ঠিকঠাক শুরু হয় না। তখন অলসতা আর ঝিমিয়েই কাটে তাদের সারাদিন। মানুষের ক্ষেত্রে এটি স্বাভাবিক হলেও এমনটা যদি কোন ঘোড়ার ক্ষেত্রে ঘটে তাহলে তা খুবই অস্বাভাবিক। তবে এমন ব্যতিক্রম চিত্রই দেখা গেছে ইংল্যান্ডের লিভারপুলের এক আস্তাবলে। সম্প্রতি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইল তাদের এক প্রতিবেদনে জানায়, দেশটির পুলিশ বিভাগের কাজে ব্যবহৃত একটি ঘোড়ার নাকি চা পান না করলে দিনই শুরু হয় না। লিভারপুলের অ্যালেরন নামের একটি আস্তাবলে থাকা এই ব্যতিক্রমী ঘোড়াটির নাম জেক।

জানা যায়, প্রায় পনেরো বছর আগে ঘোড়াটি তার সওয়ার পুলিশ কর্মীর কাপ থেকে চুরি করে চা পান করতে শুরু করে। আর সেই থেকে তার চায়ের নেশা শুরু হয়। এখন জেকের জন্য সকাল বেলা চায়ের ব্যবস্থা না করলে নাকি তাকে দিয়ে কোন কাজ করানো যায় না। তাই প্রতিদিন সকালে তার জন্য বড় এক কাপে স্পেশাল চায়ের ব্যবস্থা করেন পুলিশ কর্মীরা। তারপর জেক সেই চা পান করার পরই কাজে যেতে রাজি হয়।

এ বিষয়ে পুলিশ বিভাগের ঘোড়সওয়ারটির ম্যানেজার ও প্রশিক্ষক লিন্ডসে গাভেন জানান, আস্তাবলে মোট ১২টি ঘোড়া রয়েছে। তবে সেগুলোর মধ্যে জেক অন্যতম ও ব্যতিক্রম। জেক যে শুধু চা-ই পান করে তা নয়, তাকে দেয়া চায়ের মধ্যে পরিমানে বেশি চিনি ও দুধও যোগ করতে হয়। তার চায়ে অন্তত দুটি সুগার কিউব দিতে হয়।

প্রসঙ্গত দেশটির পুলিশ বিভাগের পক্ষ থেকে জেকের চা পান করার একটি ভিডিও ইন্টারনেটে ছাড়া হলে তা মুহূর্তেই ভইরাল হয়ে যায়। ইন্টারনেটে ভিডিওটি ইতোমধ্যে দুই লক্ষ ৩০ হাজার বারেরও বেশি দেখা হয়েছে।