উজ্জল চক্রবর্তী শিশির দুপচাঁচিয়া(বগুড়া) প্রতিনিধিঃ আগামী ৩০বছরের মধ্যে এসডিজি বাস্তবায়ন করে উন্নত দেশে রূপান্তরিত করার লক্ষ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দিকনির্দেশনা মেনে সকলকে আন্তরিকভাবে কাজ করতে হবে। বাল্য বিয়ে, ইভটিজিং, মাদক, নারী ও শিশু নির্যাতন রোধে সমাজের সকল মানুষকে এগিয়ে আসতে হবে। ছেলেদের চেয়ে মেয়ের সাফল্য এখন অনেক বেশি। তাই দেশের উন্নয়নের জন্য নারীদের সোচ্চার হতে হবে। বৃহস্পতিবার দুপচাঁচিয়া উপজেলার বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড ও প্রকল্প পরিদর্শনে এসে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন জেলা প্রশাসক ফয়েজ আহাম্মদ। এ উপলক্ষে তিনি সকালে উপজেলা প্রশাসন চত্বরে ইউএনও এসএম জাকির হোসেনের ব্যবস্থাপনায় অসহায় শীতার্তদের শীতের কাপড়ের ব্যবস্থার জন্য কাপড় সংগ্রহের যে মানবতার দেয়াল প্রতিষ্ঠা করেছেন তার শুভ উদ্বোধন করেন। পরে মহিলা কলেজ রাস্তায় ১২কোটি টাকা ব্যয়ে মডেল মসজিদ ও ইসলামিক স্বাংস্কৃতিক কেন্দ্রের নির্মান কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের শুভ উদ্বোধন শেষে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে এ উপজেলার ২০১৯-২০ অর্থবছরের উপজেলা পরিষদের এডিবির অর্থায়নে উপজেলার স্কুল, মাদ্রাসা ও কলেজ পর্যায়ে ছাত্রীদের বিশেষ প্রয়োজনে স্যানেটারী ন্যাপকিন ও ইভটিজিং, বাল্য বিবাহ, যৌন হয়রানি, মাদক, সন্ত্রাস সংক্রান্ত যেকোনো ধরনের অভিযোগের জন্য অভিযোগ বক্স বিতরণ উপলক্ষে এক আলোচনা সভা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে ও একাডেমিক সুপারভাইজার শাহ মো. মাহমুদুন নবীর পরিচালনায় সভায় প্রধান অতিথি ছাড়াও অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মাহবুবা নাছরিন রূপা, দুপচাঁচিয়া পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র জাহাঙ্গীর আলম, গণপূর্ত বিভাগ বগুড়ার নির্বাহী প্রকৌশলী বাকীউল্লাহ, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব মিজানুর রহমান খান সেলিম, মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ সামছুল হক, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এসএম আসলাম প্রমুখ। এসময় থানার এসআই আব্দুস সালাম, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক নজরুল ইসলাম মোল্লা, এমদাদুল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক তৌহিদুল হোসেন মহলদার, মহসীন আলী, ইউপি চেয়ারম্যান শাহ মো. আব্দুল খালেক, তোজাম্মেল হোসেন তোজাম, শাজাহান আলী, উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি আবু আব্দুল্লাহ প্রিন্স সহ সরকারি কর্মকর্তা, শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও গন্যমান্য ব্যক্তি উপস্থিত ছিলেন। এদিন উপজেলার বিভিন্ন দপ্তর, সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড পরিদর্শন করেন।