নোতুন খবর.কম :
বগুড়া শেরপুর উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নের পারভবানীপুর গ্রামে জামাইয়ের ছুরিকাঘাতে শ্বশুর আসাদুল ইসলাম (৪৫) এর মৃত্যু হয়েছেন।নিহত আসাদুল ওই গ্রামের মৃত ফজলুল হকের ছেলে। বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে এই খুনের ঘটনা ঘটে।
জানাযায়, প্রেমের সম্পর্কের কারনে একই গ্রামের শাহিন আকন্দের ছেলে সাব্বিরকে বাড়ি থেকে পালিয়ে গিয়ে করে বিয়ে করে আসাদুরের মেয়ে শিমু। কিন্তু আসাদুল মেয়ে-জামাইকে মেনে নিতে অস্বীকৃতি জানান। বেশ কয়েক দফা গ্রামে শালিস করে প্রায় ৫ মাস আগে আসাদুল তাদের মেনে নেয়। এর কিছুদিন পর থেকেই সাব্বির তার শ্বশুরের কাছে যৌতুক দাবি করে। এনিয়ে জামাইয়ের সাথে শ্বশুরের বিরোধ দেখা দেয়। বৃহস্পতিবার রাত পৌঁণে ১০টার দিকে আসাদুল বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে তিনমাথা নামক স্থানে সাব্বির তার পথরোধ করে টাকা চায়। এনিয়ে জামাই-শ্বশুরের মধ্যে ঝগড়ার এক পর্যায়ে সাব্বির তার শ্বশুরের বুকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। এলাকাবাসী আহত অবস্থায় আসাদুলকে শেরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
শেরপুর থানার ওসি শহিদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আসাদুলের বুকে ছুরিকাঘাতের পরপরই জামাই সাব্বির পালিয়ে গেছে। রাতেই মরদেহ উদ্ধার করে থানা হেফাজতে নেয়া হয়। শুক্রবার লাশ ময়না তদন্ত শেষে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ঘটনা জানার পর থেকেই সাব্বিরকে গ্রেফতার করতে তৎপরতা চালানো হচ্ছে।