বগুড়া জেলা বিএনপির আহবায়ক ও বগুড়া-৬ আসনের সংসদ সদস্য গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ বলেছেন, জিয়াউর রহমানের স্বাধীনতার ঘোষনা মুক্তিযুদ্ধ কে পূর্নতা দিয়েছে। শহীদ রাষ্ট্রাপতি জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষনা দেওয়ার পর একাত্তর সালে দীর্ঘ নয় মাস যুদ্ধের মাধ্যমে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীকে পরাজিত করে বাংলাদেশের বীর মুক্তিযোদ্ধারা দেশ স্বাধীন করেছিলেন। সেই দিন যে চেতনা নিয়ে মুক্তিযুদ্ধ শুরু করেছিল বাংলাদেশের মানুষ, সেই চেতনা ছিল গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রব্যবস্থা, গণতান্ত্রিক একটি সমাজব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করা। দুর্ভাগ্য আমাদের যে, ১৯৭৪-৭৫ সালে দেশে আওয়ামী লীগ একদলীয় শাসনব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করেছিল এবং গণতন্ত্রকে ধ্বংস করে দিয়েছে।‘আওয়ামী লীগ স্বাধীনতার চেতনায় বিশ্বাস করে না। বিশ্বাস করে না বলেই তারা স্বাধীনতার ঘোষক জিয়াউর রহমানকে অপমান করে এবং গণতন্ত্রকে বিশ্বাস করে না বলে তারা গণতন্ত্রের নেত্রী, দেশনেত্রী বিএনপি চেয়ারর্পারসন বেগম খালেদা জিয়াকে কারারুদ্ধ করে রেখেছে। আজকে আওয়ামী লীগ সম্পূর্ণভাবে একটি ফ্যাসিবাদী স্বৈরতান্ত্রিক দলে এবং সরকারের পরিণত হয়েছে। মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে গতকাল বুধবার বিকালে দলীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন। এমপি সিরাজ বলেন, ‘বর্তমান যে পরিস্থিতি এই অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসার জন্যে জনগণ আজকের দিনে আবার নতুন করে শপথ গ্রহণ করছে যে, আরেকটি মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে তারা অবশ্যই দেশকে মুক্ত করবে, মানুষের গণতন্ত্রকে মুক্ত করবে, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করবে এবং গণতান্ত্রিক একটি রাষ্ট্র ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করবে। আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সাবেক এমপি মোঃ হেলালুজ্জামান তালুকদার লালু, বগুড়া-৪ আসনের সংসদ সদস্য মোশাররফ হোসেন, বগুড়া জেলা বিএনপির যুগ্ম আহŸায়ক এ্যাড. সাইফুল ইসলাম, ফজলুল বারী তালুকদার বেলাল, বগুড়া জেলা বিএনপির আহŸায়ক কমিটির সদস্য রেজাউল করিম বাদশা, বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য আলী আজগর তালুকদার হেনা, লাভলী রহমান, বগুড়া জেলা বিএনপির আহŸায়ক কমিটির সদস্য আহসানুল তৈয়ব জাকির, এম আর ইসলাম স্বাধীন, হামিদুল হক চৌধুরী হিরু, তৌহিদুল আলম মামুন, কেএম খায়রুল বাশার, সহিদ উন নবী সালাম, শেখ তাহা উদ্দিন নাইন, মনিরুজ্জামান মনির, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক এ বি এম মাজেদুর রহমান জুয়েল, জেলা কৃষক দলের আহŸায়ক আকরাম হোসেন, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি আবু হাসান, সাধারণ সম্পাদক নূরে আলম সিদ্দিকী রিগ্যান, যুবদলনেতা আহসান হাবিব মমি, আদিল শাহরিয়া গোর্কী, হারুন-আর রশীদ সুজন, শ্রমিকদলের লিটন শেখ বাঘা, হোসেন আলী সহ নেতৃবৃন্দ। খবর বিজ্ঞপ্তির।