ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি:
বগুড়ার ধুনট উপজেলায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক বিধবা নারীকে ধর্ষনের মামলায় ইকবাল হোসেন (৩০) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃত যুবক মথুরাপুর ইউনিয়নের ধেরুয়াহাটি গ্রামের মৃত আলিমুদ্দিনের ছেলে। বুধবার রাতে ওই ধর্ষিতা বিধবা নারীর মা জামিলা খাতুন বাদী হয়ে তিনজনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ তাৎক্ষনিক অভিযান চালিয়ে প্রধান আসামী ইকবাল হোসেনকে গ্রেপ্তার করে।
মামলা ও স্থানীয়সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার সাতটিকরী গ্রামের মৃত জমশের আলীর ছেলে চাঁনদুল্লাহ’র সাথে ধেরুয়াহাটি গ্রামের মন্তাজ আলীর মেয়ের গত ২০ বছর আগে বিয়ে হয়। কিন্তু দুই সন্তানের জন্মের পর অসুস্থতার কারনে তার স্বামীর মৃত্যু হয়। স্বামীর মৃত্যুর পর সে তার সন্তানদের নিয়ে বাবা মন্তাজ আলীর বাড়ীতে বসবাস করে আসছে। কিন্তু দীর্ঘদিন যাবত ধেরুয়াহাটি গ্রামের মৃত আলিমুদ্দিনের ছেলে ইকবাল হোসেন ওই বিধবা নারীকে প্রায়ই উত্ত্যাক্ত ও কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। বিষয়টি স্থানীয় মাতব্বরদের অবগত করলে ইকবাল হোসেন আরো বেপরোয়া হয়ে ওঠে। এঅবস্থায় গত ৭ জুলাই রাত সাড়ে ১১টায় ইকবাল হোসেন ওই বিধবা নারীর ঘরে ঢুকে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষন করে। এরপর বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ইকবাল হোসেন ওই নারীকে তার বাড়ীতে নিয়ে যায়। কিন্তু সে বিয়ে না করেই কৌশলে সটকে পড়ে। এঘটনায় বুধবার রাতে ওই বিধবা নারীর মা জামিলা খাতুন বাদী হয়ে মথুরাপুর ইউনিয়নের ধেরুয়াহাটি গ্রামের মৃত আলিমুদ্দিনের ছেলে ইকবাল হোসেন, আল আমিন ও আল মামুদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেন।
ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইসমাইল হোসেন জানান, থানায় মামলা দায়েরের পর তাৎক্ষনিক অভিযান চালিয়ে প্রধান আসামীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে এবং ওই নারীকে উদ্ধার করে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।