নোতুন খবর.কম : বগুড়া-৫ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব হাবিবর রহমান বলেছেন, বর্তমান সরকার নতুন প্রজন্মকে রাষ্ট্রভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস জানাতে নানামুখী উদ্যোগ নিয়েছে। বাঙালি জাতির সংগ্রামের ইতিহাস এবং জাতির পিতার আত্মত্যাগের ইতিহাসকে ছড়িয়ে দিয়ে তাদের সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। নতুন প্রজন্মের মাঝে একুশের চেতনা জাগ্রত করার পাশাপাশি তাদের দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ করতে সরকারি উদ্যোগের পাশাপাশি সকল মহলকেই এগিয়ে আসতে হবে। ভাষা আন্দোলন, স্বাধীকার আন্দোলন ও বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে ইতিহাস নতুন প্রজন্মকে ছড়িয়ে দেওয়া না গেলে তারা দেশপ্রেমে উজ্জীবীত হবেনা। নতুন প্রজন্মই যেহেতু আগামীতে এই দেশ পরিচালনায় নেতৃত্ব দেবে একারণে পরিবার থেকে শুরু করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং সামাজিক-সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠনকেও দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে এগিয়ে আসার কোন বিকল্প নেই।
বৃহস্পতিবার বগুড়া প্রেসক্লাবের উদ্যোগে মহান একুশে ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। বগুড়া প্রেসক্লাবের সভাপতি মাহমুদুল আলম নয়ন এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন দৈনিক করতোয়া সম্পাদক মোজাম্মেল হক লালু, প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি প্রদীপ ভট্টাচার্য্য শংকর, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আরিফ রেহমান, বগুড়া সাংবাদিক ইউনিয়ন সভাপতি আমজাদ হোসেন মিন্টু, সাধারণ সম্পাদক জেএম রউফ, ক্লাবের সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম বাবু, দৈনিক বগুড়ার মফস্বল সম্পাদক বাদল চৌধুরী প্রমুখ। বগুড়া প্রেসক্লাবের সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মেহেরুল সুজনের সঞ্চালনায় সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন সহ সভাপতি এস.এম কাওছার, যুগ্ম সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন পল্লব, অর্থ সম্পাদক কমলেশ মহন্ত সানু , দপ্তর সম্পাদক শফিউল আজম কমল, ক্রীড়া সম্পাদক ইলিয়াস হোসেন, পাঠাগার সম্পাদক এইচ আলিম, সদস্য আবদুর রহিম, ফরহাদুজ্জামান শাহী, প্রবীর মহন্ত, লতিফুল করিম। আলোচনা সভা শেষে প্রধান অতিথি বগুড়া প্রেসক্লাবের ৫টি বিভাগে আয়োজিত শিশু-কিশোর চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় বিজয়ী ও অংশগ্রহণকারিদের হাতে পুরস্কার ও সনদ তুলে দেন। চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় এবারে বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেরন বগুড়ার খ্যাতিমান চিত্রশিল্পী বেলাল আহম্মেদ, বগুড়া প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি প্রদীপ ভট্টাচার্য্য শংকর, চিত্রশিল্পি নিক্সন। প্রতিযোগিতায় দেড়শতাধিক শিশু-কিশোর অংশ নেয়। এছাড়া দিবসের সূচনালগ্ন ২০ ফেব্রæয়ারি দিবাগত রাত ১২টা ১ মিনিটে বগুড়া কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন ক্লাবের সদস্যবৃন্দ।