ডেস্ক : ভারতের বিতর্কিত সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের (সিএএ) প্রতিবাদে বিজেপি থেকে একযোগে পদত্যাগ করেছেন মধ্যপ্রদেশের ৮০ জন মুসলিম নেতা। এই আইনকে বিভেদের হাতিয়ার আখ্যা দিয়ে নবনির্বাচিত বিজেপি সভাপতি জে পি নাড্ডার কাছে পদত্যাগপত্র পাঠিয়েছেন তারা।
পদত্যাগকারী মুসলিম নেতা রাজিক কুরেশি ফারসিওয়ালা বলেন, ধর্মের ওপর ভিত্তি করে নাগরিকত্ব আইন তৈরি করা হয়েছে। যার ফলে বিজেপির মুসলিম নেতাদের জন্য সমাজে থাকা দায় হয়ে দাঁড়ায়। মানুষ কটাক্ষ করে জানতে চায়, এই আইনের পক্ষে আর কতদিন সমর্থন দিবো।

তিনি বলেন, ধর্মের ওপর ভিত্তি করে নয়। বরং ভারতে আশ্রয় নেয়া নিপীড়িত সকল শরনার্থীরই নাগরিকত্ব পাওয়ার অধিকার রয়েছে। তাছাড়া ধর্মের ভিত্তিতে কাউকে অনুপ্রবেশকারী কিংবা সন্ত্রাসবাদী ট্যাগ লাগিয়ে দেয়াও উচিত নয়। তাই গত বৃহস্পতিবার বিজেপি সভাপতি জে পি নাড্ডার কাছে পদত্যাগপত্র পাঠানো হয়েছে।

অন্যদিকে পুরো ভারতে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন বাস্তবায়ন করতে মরিয়া মোদি-অমিত শাহ নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকার। বিরোধী পক্ষের সকল দাবিকে ষড়যন্ত্র আখ্যা দিয়ে এই আইনকে ভারতের জন্য মঙ্গলজনক বলছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

প্রসঙ্গত, সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন অনুযায়ী, ধর্মীয় নির্যাতনের শিকার হয়ে ২০১৪ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান থেকে যেসব হিন্দু, পার্সি, খ্রিষ্টান, বৌদ্ধ, জৈন ও শিখ ভারতে প্রবেশ করেছেন তাদেরকে নাগরিকত্ব দেয়া হবে।