সুদর্শন কর্মকার ঃ চাকুরীর সুবাদে একই এলাকার দুইজন নাটোরের সিংড়ায় সরকারী কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। একজন ইউএনও অন্যজন পুলিশ কর্মকর্তা। রাজনৈতিক উর্ধে থেকে সুনামের সঙ্গে এলাকার আইনশৃংখলা ও সাধারণ মানুষের জন্য কাজ করছেন এই দুই কর্মকর্তা। সিংড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সুশান্ত কুৃমার মাহাতো ও সিংড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ন‚র-এ-আলমের বাড়ি সিরাজগঞ্জ জেলার রায়গঞ্জ উপজেলায়।

ইউএনও সুশান্ত কুৃমার মাহাতো ২০১০ সালে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর অডিট কর্মকতা হিসেবে যোগদান করেন। এরপর রুপালী ব্যাংক ও কর্ণফুলী গ্যাস কোম্পানিতে চাকুরী পান। ২০১৩ সালে বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার হিসেবে চাকুরী করেন। পরে বিসিএস (প্রশাসনিক কর্মকর্তা) সহকারী কমিশনার হিসেবে নীলফামারীতে যোগ দেন। ২০১৫-১৬ তে বগুড়া জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে সহকারী কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। ২০১৭-১৮ শিবগঞ্জ উপজেলায় সহকারী কমিশনার (ভ‚মি) কর্মকর্তা হিসেবে চাকুরী করেন। সর্বশেষ ২০১৮ সালের ৯ অক্টোবর নাটোরের সিংড়ায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। বেকার যুবকদের কর্মসংস্থান ও এলাকার ছেলে-মেয়েদের পড়ালেখার সুযোগ করে দিতে ইউএনও সুশান্ত কুৃমার মাহাতো তার গ্রামের বাড়ি সিরাজগঞ্জ জেলার রায়গঞ্জের পশ্চিম আটঘরিয়া গ্রামে তার পিতার নামে ‘শহরলাল মাহাতো কারিগরি স্কুল এন্ড কলেজ’ প্রতিষ্ঠা করেছেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সুশান্ত কুৃমার মাহাতো আজীবন সাধারণ মানুষের সেবা করতে চান।

সিংড়া থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি নুর-এ-আলম ২০০১ সালে উপ-পরিদর্শক হিসেবে পুলিশ বাহিনীতে যোগদান করেন। চাকুরীর সুবাদে বগুড়ার কাহালু ও পাবনার আতাইকুলা থানায় দায়িত্ব পালন করেছেন। ২০১৩-১৪ সালে ওসি তদন্ত কর্মকর্তা হিসেবে বগুড়া ও ২০১৫ সালে পাবনার আতাইকুলায় কর্মরত ছিলেন। ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে কর্মদক্ষতা, জঙ্গীবাদ নির্ম‚লে ভ‚মিকা রাখায় আইজিপি পদক পান। ২০১৮ সালে পুলিশের সর্বোচ্চ বিপিএম পদক পান তিনি। এছাড়াও তিনি ডিবি (গোয়েন্দ) পুলিশের ওসি ছিলেন। ওসি নুর-এ-আলম সিরাজগঞ্জ জেলার রায়গঞ্জের বহ্মপুর গ্রামের আলহাজ¦ আব্দুল করিমের ছেলে। তিনি বলেন, বাল্যবিবাহ, মাদক-সন্ত্রাস ও চুরি-ডাকাতি রোধে সকলের সঙ্গে মিলেমিশে কাজ করতে চাই। এর বাইরে পুলিশকে জনবান্ধব বাহিনী হিসেবে গড়ে তুলতে কাজ করবেন। এজন্য তিনি সকলের সহযোগিতা চেয়েছেন।