ডেস্ক : নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদে তৃতীয় দিনের মতো পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন প্রান্তে সড়ক-রেলপথ অবরোধ করে আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করছে আন্দোলনকারীরা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ইন্টারনেট সেবা নিয়ন্ত্রণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার।

রাজ্যসরকারের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, মালদহ, মুর্শিদাবাদ, উত্তর দিনাজপুর, হাওড়ায় বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে ইন্টারনেট সেবা। এছাড়া বারাসাত মহকুমা, বসিরহাট মহকুমা, বারুইপুর ও ক্যানিং মহকুমাতেও বন্ধ করা হচ্ছে ইন্টারনেট।
এদিকে রোববার সকাল থেকে রাজ্যের নতুন নতুন জায়গায় আন্দোলন ছড়িয়ে পড়তে দেখা গেছে। এদিন মালদহ জেলার বিভিন্ন অংশে রেলপথ এবং জাতীয় সড়ক অবরোধের খবর পাওয়া গেছে। বীরভূম জেলার মুরারইয়ের দুটি ব্লকেই বিক্ষোভ বাড়ছে। রাজ্যের অন্যান্য স্থানেও বিক্ষোভের খবর পাওয়া গেছে।

জেলায় জেলায় অবরোধ বিক্ষোভ ক্রমেই বাড়তে থাকায় কঠোর অবস্থান নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রতিবাদের নামে ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ, রাস্তা অবরোধ করলে কাউকে ছেড়ে দেওয়া হবে না বলে কড়া বিবৃতি দিয়েছেন তিনি। অশান্তি ছড়ানোর ইঙ্গিত আসতেই কড়া হাতে পরিস্থিতির মোকাবিলা করার নির্দেশ দিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এরই ধারাবাহিকতায় পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন স্থানে ইন্টারনেট সেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়। এর আগে নিরাপত্তাজনিত কারণে আসামেও ইন্টারনেট সেবা বন্ধ করা হয়। সূত্র : আনন্দবাজার, এই সময়