ডেস্ক ঃ
পাবনা-৪ সংসদীয় আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন ঈশ্বরদী উপজেলার নির্বাচিত বর্তমান চেয়ারম্যান মো. নুরুজ্জামান বিশ্বাস।
নুরুজ্জামান পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি। মুক্তিযুদ্ধের সময় এ অঞ্চলে মুজিব বাহিনীর কমান্ডার হিসেবে যুদ্ধ করেন তিনি।
রবিবার (৩০ আগস্ট) গণভবনে দলটির সংসদীয় বোর্ড ও স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের যৌথসভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

পরে দলের দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

তিনি সাংবাদিকদের জানান, বৈঠকে ঢাকা-৫, ঢাকা-১৮, সিরাজগঞ্জ-১ ও নওগাঁ-৬ আসনের উপনির্বাচনের দলীয় প্রার্থীর বিষয়েও আলোচনা হয়েছে। এ সময় এই চারটি আসনের প্রার্থী মনোনয়নের সিদ্ধান্ত গ্রহণের দায়িত্ব প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ওপর অর্পণ করেন মনোনয়ন বোর্ডের সদস্যরা। পরবর্তী সময়ে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানাবেন দলীয় সভাপতি।

এর আগে পাঁচটি আসনের উপনির্বাচনের জন্য মোট ১৪১ জন মনোনয়নপ্রত্যাশী দলীয় মনোনয়নপত্রের ফরম সংগ্রহ ও জমা দিয়েছিলেন। এর মধ্যে পাবনা-৪ আসনের জন্য মনোনয়ন চেয়েছিলেন এই আসনের সদ্য প্রয়াত এমপি ও সাবেক ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ ডিলুর স্ত্রী, ছেলে ও মেয়েসহ ২৮ জন। এই অবস্থায় প্রয়াত এমপির পরিবারের বাইরের কাউকে দলীয় প্রার্থী করা হলো।

গত ২ এপ্রিল সংসদ সদস্য শামসুর রহমান শরীফ ডিলুর মৃত্যুতে পাবনা-৪ আসন শূন্য ঘোষণা করা হয়। এরপর ৯০ দিনের মধ্যে উপনির্বাচন করার কথা থাকলেও করোনা মহামারির কারণে তা সম্ভব হয়নি। রোববার বৈঠকে পাবনা-৪ আসনে প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়েছে।

নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর পাবনা-৪ আসনের উপনির্বাচন হবে। ভোটের তারিখ ২৬ সেপ্টেম্বর। সেদিন সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলবে।