নোতুন খবর.কম : বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রিয় সদস্য ও রাজশাহী সিটি মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, ৯০ এর পর বিএনপি ক্ষমতায় এসে কৃষক হত্যা, শ্রমিক হত্যা সহ দেশে মিলকারখানা বন্ধ করে দিয়েছিল। খালেদার আমলে এশিয়ার বৃহৎ পাটকল আদমজী বন্ধ করে হাজার হাজার শ্রমিক বেকার করেছিল। ঐ সময়ে বাংলাদেশে পাটকল বন্ধ হলেও ভারতের কোলকাতা সহ পশ্চিবঙ্গে ১৭টি পাটকল চালু হয়। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কৃষি, বিদ্যুৎ উৎপাদন, তথ্য প্রযুক্তি, যোগাযোগ ব্যবস্থার ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়নের মহাসড়কে বাংলাদেশ। এখন বায়লাদেশ আর তলাবিহীন ঝুড়ি নয়। আমরা নিজেদের অর্থায়নে পদ্মা সেতু ছাড়াও মেগা প্রজেক্ট করছে।
তিনি শনিবার দুপুরে বগুড়া পৌর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কথাগুলো বলেন। সংগঠনের পৌর কমিটির আহবায়ক রফি নেওয়াজ খান রবিন এর সভাপতিত্বে সম্মেলন উদ্বোধন করেন জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ডা: মকবুল হোসেন।
বক্তব্যরাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মজিবর রহমান মজনু, বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা আ’লীগের সহ সভাপতি এড. মকবুল হোসেন মুকুল, যুগ্ম সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু, টি জামান নিকেতা, মঞ্জুরুল আলম মোহন, সাংগঠনিক সম্পাদক প্রদীপ কুমার রায়, আসাদুর রহমান দুলু, জাকির হোসেন নবাব, সুলতান মাহমুদ খান রনি, আল রাজি জুয়েল, আলমগীর বাদশা, আব্দুস সালাম, শুভাশীষ পোদ্দার লিটন, নাইমুর রাজ্জাক তিতাস, লাইজিন আরা লীনা প্রমুখ। এসময় পৌর কমিটির যুগ্ম আহবায়ক শাহাদৎ হোসেন শাহীন, মিজানুর রহমান বকুল, শেখ শামীম, ওবায়দুল হাসান ববি, এ্যাডনিস তালুকদার বাবু সহ সংগঠনের জেলা ও পৌর শাখার বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।
এসময় প্রধান অতিথি আরও বলেন, ভারতের কাছে থেকে আওয়ামী লীগ ন্যায্য হিস্যা নেয়ার চেস্টা করে আর বিএনপি আতাঁত করে। বিএনপি জোট মিথ্যাচার করে সবসময়। তাদের সময়ে দেশ পিছিয়ে যায় আর আওয়ামী লীগ দেশকে সামনে এগিয়ে নেয়।
সকালে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন ও বেলুন উড়িয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করা হয়। এপর কোরআন ও গীতা পাঠের মধ্যদিয়ে শুরুহয় মুল কার্যক্রম। সম্মেলন উপলক্ষে শহরের শহীদ খোকন পার্ক সাজানো হয় নতুন রুপে। সকাল থেকে বিভিন্ন ওয়ার্ডের নেতা কর্মীরা মিছিল নিয়ে সম্মেলন স্থল খোকন পার্কে আসতে শুরু করে। একে একে কানায় কানায় পূর্ণ হয়েযায় খোকন পার্ক সহ এর আশেপাশের রাস্তা। শহরের ২১ টি ওয়ার্ডের নেতা কর্মীদের পাশাপাশি ছাত্রলীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগের পক্ষথেকেও মিছিল নিয়ে সম্মেলন কেন্দ্রে আসে। এসময় জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু ¯েøাগানে মুখরিত হয়েউঠে শহরের প্রাণকেন্দ্র সাতমাথা শহীদ খোকন পার্ক সহ আসেপাশের এলাকা।
বিকেলে জেলা পরিষদ মিলনায়তনে শুরু হয়ে ২য় অধিবেশন। সেখানে প্রধান অতিথি, উদ্বোধকসহ আওয়ামীলীগ নেতারা উপস্থিত ছিলেন। তাদের উপস্থিততিতে পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক পদে ভোট গ্রহন করা হয়।