নোতুন খবর.কম :
বগুড়ার কাহালুতে মাটি খুড়ে নিখোঁজ কলেজ ছাত্র আরমান হোসেন আন্নার (১৯) মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।
সোমবার সকাল আনুমানিক সাড়ে ১০টার দিকে কাহালু থানার মুরইল ইউনিয়নের ডুমুর গ্রাম খাঁ পাড়ার একটি পুকুর পাড় থেকে মরদেহ উদ্ধার করা হয়।নিহত আরমান হোসেন আন্না ডুমুর গ্রামের আজিজার রহমানের ছেলে এবং গাইবান্ধা সরকারী কৃষি কলেজের ১ম বর্ষের ছাত্র।
এঘটনায় পুলিশ সুজন (২২) ও ওবায়দুর (৩০) নামের দুই যুবককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে।
কাহালু থানার ওসি জিয়া লতিফুল জানান, রবিবার রাত ৮ টা পর্যন্ত আরমান ও সুজনকে গ্রামের ওই পুকুর পাড়ে বসে গল্প করতে দেখে নিহতের পরিবারের লোকজন। রাতে আরমান বাড়ি না ফিরলে পরিবারের সদস্যরা সোমবার ভোর থেকে খুঁজতে থাকে। খোঁজাখুজির এক পর্যায় ডুমুরগ্রাম খাঁপাড়ায় ইটের দেয়াল ঘেরা পুকুর পাড়ে মাটি খোড়া দেখে সন্দেহ হয়।পরে সেখানে মাটিতে পুতে রাখা আরমানের মরদেহের সন্ধান পাওয়া যায়। খবর পেয়ে সকাল সাড়ে ১০ টায় পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে। শ্বাসরোধ করে আরমানকে হত্যার পর মাটি খুড়ে মরদেহ পুতে রাখা হয় বলে ধারনা করা হচ্ছে। তবে কি কারনে আরমানকে হত্যা করা হয়েছে তা এখনও জানা যায়নি। তিনি বলেন সুজন ও ওবাইদুর নামের দুইজনকে সন্দেহ মুলক ভাবে আটক করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বিস্তারিত জানা যাবে।