নোতুন খবর.কম
বগুড়া শহরের ডক্টরস ক্লিনিকে টনসিল অপারেশনের সময় এক শিশু মারা গেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত দুই ডাক্তারকে পুলিশ আটক করে। নিহত শিশু তাওহীদ হোসেন ইয়াকুব (৯) বগুড়া জেলার সারিয়াকান্দি উপজেলার নারচী গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে এবং মাঝিড়া এলাকার শহীদ কাডেট একাডেমীর তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র । আটককৃত দুই ডাক্তার হলেন , শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজের (মিজমেক) নাক ,কান ও গলা বিভাগের সহযোগি অধ্যাপক ডাক্তার সাইদুজ্জামান ও একই কলেজের অ্যানেসথিয়াীশষ্ট ডাক্তার নিতাই চন্দ্র সরকার।
নিহত শিশুর পিতা সিরাজুল ইসলাম জানান, ইয়াকুবকে বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টার দিকে বগুড়া শহরের ঠনঠনিয়াস্থ ডক্টরস ক্লিনিকের দ্বিতীয় ইউনিটে ডাক্তার সাইদুজ্জামানের তত্বাবধানে ভর্তি করা হয়। রাত ৮টার দিকে শিশুকে অপারেশন থিয়েটারে (ওটি) নেন ডাক্তার। এরপর ২ ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও শিশুর অপারেশন শেষ না হওয়ায় স্বজনদের মনে সন্দেহ হয়। তারা শিশুকে ওটিরুমের বাইরে আনতে বলেন। কিন্তু দীর্ঘ সময় তালবাহানা করে রাত ১২ টার দিকে শিশুকে হাসপাতালে পাঠাতে অ্যামাবুলেন্স ডাকা হয়। তখন রোগীর সব্জনরা ক্লিনিক ঘেরাও করে হৈ চৈ শুরু করে এবং থানায় খবর দেয়া হয়। পরে সদর থানা পুলিশ গিয়ে অভিযুক্ত দুই ডাক্তারকে আটক করে থানায় নেয় এবং লাশমর্গে পাঠায়।
এ ঘটনায় সকাল ১১টা পর্যন্ত থানায় মামলা হয়নি এবং ডাক্তারদের থানা হেফাজতে রাখা ছিল। সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রেজাউল করিম রেজা জানান, পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রেখেছে। কোন ভাংচুরের ঘটনা ঘটতে দেয়া হয়নি।
এব্যাপারে বগুড়া সদর থানার ওসি এসএম বদিউজ্জামান বলেন, ২ ডাক্তারকে আটক করা হয়েছে। এব্যাপারে কেউ মামলা দিলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।