নোতুন খবর.কম :
বগুড়ায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে চোলাই মদসহ গ্রেফতারকৃত ৩ জনকে ৬ মাস ১৫ দিনকরে কারাদন্ড ও ৫০০ টাকাকরে জরিমানা করেছে। রোববার বিকেলে শহরের স্টেশন রোডের বিআরটিসি ডিপোর সামনে থেকে ২৫০ মিলি চোলাই মদসহ তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। এরপর তাদেরকে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে উল্লেখিত সাজা প্রদান করেন বগুড়া জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জি এম রাশেদুল ইসলাম ও ফেরদৌস আরা। এসময় র্যাব ১২ বগুড়ার কোম্পানী কমান্ডার এএসপি স্বজল কুমার সরকার উপস্থিত ছিলেন।
সাজাপ্রাপ্তরা হলেন, নারুলীর আবু সাইদের ছেলে সজল শেখ (৩২), সিরাজগঞ্জের কোনাবাড়ীর বাবর আলীর ছেলে ফরিদুল ইসলাম (৫৫) ও গন্ডগ্রামের চান্দুর ছেলে আরিফ (২২)। সাজাপ্রাপ্ত দেরমধ্যে ২ ফুটপাতে ফলের ও ফুসকার ব্যবসা করে আর একজন লেদমিস্ত্রির কাজ করে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছে। এছাড়াও পৃথক ৪টি মোবাইল কোর্ট এর মাধ্যমে ৭১ হাজার ২০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।
জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের জুডিশিয়াল মুন্সিখানা শাখার সহকারী কমিশনার এর পক্ষথেকে জানানো হয়,

১. নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পাপিয়া সুলতানা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন -২০০৯ এর ৪৩ ধারা অনুযায়ী লাইসেন্স বিহীন ও অসাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার উৎপাদন করায় মাটিডালী বিমান মোড়ের সান শাইন আবাসিক হোটেলকে ৬০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাসনিমুজ্জামান সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮ এর ৬৬ ধারায় লাইসেন্স বিহীন মোটর সাইকেল চালানোর অপরাধে ১ টি মামলায় ১০০০ টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করেন।

২. ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ ও অত্যাবশ্যকীয় পণ্য নিয়ন্ত্রণ আইন- ১৯৫৬ অনুসারে ২ টি মামলায় ১০,২০০ টাকা জরিমানা করেন বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রোমানা রিয়াজ ও মারুফ আফজাল রাজন।