নোতুন খবর.কম : বগুড়ার নন্দীগ্রামে পুলিশের বিশেষ শাখার (ডিএসবি) কনস্টেবল আব্দুল মতিনকে মারপিটের অভিযোগে দুই যুবলীগ কর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ওই ঘটনায় বহিস্কৃত উপজেলা যুবলীগ সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান দুলাল চন্দ্র মহন্তকে এখনও গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।
নন্দীগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ( ওসি) শওকত কবীর জানান, রবিবার রাত ৯ টার দিকে পুলিশ কনস্টেবল আব্দুল মতিন বাসস্ট্যান্ড এলাকায় দায়িত্ব পাললন করছিলেন। এসময় উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি দুলাল মহন্ত মাতাল অবস্থায় তার সহযোগীদের সাথে নিয়ে কন্সটেবল আব্দুল মতিনকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং শারিরিকভাবে লাঞ্চিত করেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে আব্দুল মতিনকে উদ্ধার করে। এসময় দুলাল মহন্ত পালিয়ে গেলেও পুলিশ সুমন ও প্রশান্ত নামের যুবলীগের দুই কর্মীকে গ্রেফতার করে। এঘটনায় ভাইস চেয়ারম্যান দুলাল মহন্তকে গ্রেফতার করতে রাতেই পুলিশ বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিে ছে। এঘটনায় ভাইস চেয়ারম্যান দুলাল মহন্তসহ ৬ জনের নামে কনস্টেবল আব্দুল মতিন বাদী হয়ে মামলা করেছে।
জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম ডাবলু জানান, প্রায় বছর খানেক আগে গাঁজাসহ গ্রেফতার হওয়ার পর দুলালকে যুবলীগ থেকে বহিস্কার করা হয়। সে এখন যুবলীগের কেউ না।