নোতুন খবর.কম :
ভূয়া ফেসবুক আইডি খুলে বগুড়ায় এক চিকিৎসক ও তার কার্যালয়ের অন্যান্য কর্মকর্তা কর্মচারিদের নামে মিথ্যা অপপ্রচার ও সম্মানহানির অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের করা মামলায় আখতারুজ্জামান নামের এক জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সে নিজেকে বানিজ্য প্রতিদিন নামে একটি পত্রিকার সাংবাদিক বলে পরিচয় দিয়েছে।
প্রযুক্তির সহযোগিতায় জেলা পুলিশের সাইবার ইউনিটের সদস্যরা রবিবার সদরের সাবগ্রামের আকাশতারা গ্রামে তার নিজ বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে।

পুলিশ সূত্র জানায়, গ্রেফতার করা আখতারুজ্জামান (২৭) সদরের সাবগ্রাম ইউনিয়নের আকাশতারা গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে। সে নিজেকে বানিজ্য প্রতিদিন নামে একটি পত্রিকার সাংবাদিক বলে পরিচয় দিয়েছে।

বগুড়া জেলা পুলিশের সাইবার ইউনিটের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর মো: এমরান মাহমুদ তুহিন জানান, ধৃত আখতারুজ্জামান আলতাফ আহমেদ নামে ফেক আইডি এবং এমএইচভি’র কন্ঠস্বর নামে গ্রুপ লিংক হতে বগুড়ায় স্বাস্থ্য স্বেচ্ছাসেবীদের সম্মানী প্রদানে হরিলুট, নেপথ্যে গরিবের ডাক্তার সামির হোসেন মিশু লিখে এবং তার ছবি পোস্ট করে অপপ্রচার চালায়। শুধু তাই নয়, একইভাবে সে ওই অফিসের কর্মচারি সোহেল রানা, খাদেমুল ইসলাম ও সুরাইয়া আক্তারের নামেও মিথ্যা ও বানোয়াট তথ্য অপপ্রচার করে।
যা সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার অফিসের প্রধান সহকারি কাম হিসাব রক্ষক তার ফেসবুক আইডিতে (শামিমা শিমু) দেখতে পান।
তিনি আরও জানান,এই অপ প্রচার ফেসবুকে ভাইরাল হয়। এতে বগুড়া সদর স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: সামির হোসেন মিশুসহ ওই অফিসের কর্মকর্তা ও কর্মচারিদের সম্মান চরমভাবে ক্ষুন্ন হয়েছে। এ ঘটনায় ওই অফিসের প্রধান সহকারি কাম হিসাব রক্ষক শামিমা আকতার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন। এরপর প্রযুক্তির মাধ্যমে খুজে বের করে আখতারুজ্জামানকে গ্রেফতার করা হয়।