নোতুন খবর.কম :
মাস্ক না পরায় বগুড়ায় ৫০ ব্যক্তির জেল-জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এদের মধ্যে ৩ ব্যক্তিকে এক থেকে সাতদিন কারাদণ্ড এবং ৪৭ জনকে ছয় হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়। বুধবার বগুড়া জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাছিম রেজা ও পাপিয়া সুলতানা এবং বগুড়া সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আজিজুর রহমান শহরের সাতমাথা এবং মাটিডালি এলাকায় পৃথক ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে এই জেল ও জরিমানা করেন।

দণ্ডিত ৩ ব্যক্তির মধ্যে জেলার ধুনট উপজেলার বেড়েরবাড়ি গ্রামের মৃত সেকেন্দার আলীর ছেলে আবু কালামকে (৩৬) ৭ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।
এ ছাড়া বগুড়া শহরের ঝোপগাড়ি এলাকার মোহাম্মদ সোহেলের ছেলে মোহাম্মদ মোহন (১৮) ও সদর উপজেলার শাখারিয়া এলাকার আব্দুল হামিদের ছেলে সিহাব হাসানকে (১৯) ১ দিন করে কারাবাসের আদেশ দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বগুড়া জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাছিম রেজা জানান, তিনি এবং অপর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পাপিয়া সুলতানা বুধবার সকাল ১১টার দিকে শহরের জিরো পয়েন্ট সাতমাথা এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। এ সময় মাস্ক না পরায় মোহাম্মদ মোহন ও সিহাব হাসান নামে ২ জনকে একদিন করে কারাদণ্ড এবং অপর ৩০ জনের কাছ থেকে ৩ হাজার ১০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। সংক্রমণ রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইনে অভিযুক্তদের দণ্ডাদেশ দেওয়া হয়।

বগুড়া সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আজিজুর রহমান জানান, দুপুর ২টার দিকে তিনি শহরের উত্তরের প্রবেশমুখ মাটিডালি বিমান মোড় এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। ওই একই আইনে তিনি আবু কালাম নামে এক ব্যক্তিকে ৭ দিন বিনাশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেন। এ ছাড়া আরও ১৭ জনের প্রত্যেককে ২০০ টাকা করে ৩ হাজার ৪০০ টাকা জরিমানা করা হয়। ইউএনও আজিজুর রহমান বলেন, ‘ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান আগামীতেও অব্যাহত থাকবে।’