নোতুন খবর.কম :
বগুড়া সাবগ্রামে দুর্গামন্দিরের সামনে যুবলীগ নেতা মানিক হত্যা মামলার আসামি সুব্রত দাস সম্রাট (২৭) কে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। নিহত সম্রাট সাবগ্রাম পালপাড়ার কালিপদ দাসের ছেলে। রোববার রাত ১টার দিকে সদরের সাবগ্রাম হাট দুর্গা মন্দির চত্বরে এই ঘটনা ঘটে। সম্রাট ২০১৫ সালের যুবলীগ নেতা মনিরুজ্জামান মানিক হত্যা মামলার আসামি বলে জানিয়েছে পুলিশ।

সাবগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু সালেহ জানান, রাত আনুমানিক দেড়টা সাবগ্রাম হাট দুর্গা মন্দিরের সামনে দিয়ে মোটর সাইকেল নিয়ে যাচ্ছিল সম্রাট। এ সময় দুর্বৃত্তরা ধাওয়া করলে প্রান রক্ষায় মন্দিরের ভিতরে প্রবেশ করে। সেখানেই তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

জানা গেছে, সম্রাটের নামে হত্যাসহ একাধিক মামলা রয়েছে। সম্প্রতি এলাকায় বালু ব্যবসা নিয়ে তার সঙ্গে প্রতিপক্ষের বিরোধ হয়। তিন মাস আগে সম্রাটের বিরুদ্ধে সাবগ্রাম এলাকায় মানববন্ধন করে তার প্রতিপক্ষ গ্রুপের লোকজন। এরপর থেকে সম্রাট এলাকা ছেড়ে বগুড়া শহরে বসবাস করতে থাকেন। সম্রাটের বড় ভাই জুয়েল দাস ওরফে হাড়ি জুয়েল পুলিশের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী।

বগুড়া সদর থানার ওসি হুমায়ন কবির জানান, সম্রাটের বিরুদ্ধে হত্যাসহ একাধিক মামলা রয়েছে। সে পুলিশের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী হাড়ি জুয়েলের ছোট ভাই। ঘটনার পর পরই এলাকায় তল্লাশি চালানো হয়েছে। এ ঘটনার পর এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।