নোতুন খবর. কম ঃ

বগুড়ায় শশুরকে অপহরণ করে জামাইয়ের ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবির ঘটনা ঘটেছে। এঘটনায় বগুড়া সদর থানা পুলিশ জামাইসহ ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে।
গ্রেফতারকৃতরা হলো, বগুড়ার কাহালু উপজেলার দেওগ্রাম দীঘিরপাড়া এলাকার মৃত রইচ উদ্দিনের পুত্র আবু সাঈদ (৩০), একই উপজেলার চকজগৎপুর এলাকার মৃত কমের উদ্দিনের পুত্র জিয়াউর রহমান (৩৮) ও জাঙ্গালপাড়া এলাকার আব্দুর রশিদের পুত্র মোঃ হৃদয় প্রাং (২২)।
বগুড়া সদর থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ রেজাউল করিম জানান, পারিবারিক বিরোধের জেরে গত সোমবার রাতে বগুড়া সদরের ২য় বাইপাস এলাকার বুজরুক বাড়ীয়া গ্রামের বাসিন্দা এবং ওই গ্রামের বায়তুল রহিম মসজিদের মোয়াজ্জেম মোঃ গোফফার শাহকে তার মেয়ের জামাই গ্রেফতারকৃত আসামী আবু সাঈদ ও সঙ্গীয়রা অপহরণ করে। অপহরণ করে গোফফার শাহকে শিবগঞ্জ উপজেলার চন্ডিহারা এলাকার নির্জন স্থানে একটি ভাঙা ঘরের মধ্যে বেঁধে রাখে। এবং তার পরিবারের লোকজনকে আসামী জিয়াউর রহমান ফোন করে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে না হলে মেরে ফেলার হুমকী দেয়।
বগুড়া সদর থানার মঙ্গলবার সন্ধ্যায় অভিযোগ পাওয়ার পর থেকে আব্দুল গোফফারকে উদ্ধারে অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে মোবাইলের সুত্র ধরে জিয়াউর রহমানকে গ্রেফতার করা হয় এবং তার দেয়া তথ্যমতে মঙ্গলবার মধ্যরাতে আব্দুল গোফফার শাহকে শিবগঞ্জ উপজেলার চন্ডিহারা এলাকা থেকে উদ্ধার করা হয়। এসসময় অপহৃতের জামাই আবু সাঈদ ও হৃদয়কে গ্রেফতার করা হয়।
গ্রেফতারকৃতদের আজ দুপুরে আদালতে প্রেরন করা হয়।