নোতুন খবর. কম :
শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় বগুড়ার ছাত্রাবাস গুলোও বন্ধ রয়েছে। এই সুযোগে অনেক ছাত্রাবাসেই বসছে জুয়ার আসর। এমনি বগুড়া শহরের সেউজগাড়ীতে বন্ধ ছাত্রাবাসের অভিযান চালিয়ে ১০ জুয়ারীকে আটক করে ১০ দিনকরে বিনাশ্রম কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। এসময় জুয়ারীদের কাছেথেকে ২ লাখ ৪১ হাজার ৬৩০ টাকা জব্দ করা হয়।
বুধবার রাতে সেউজগাড়ীর বেলালের ছাত্রাবাসে অভিযান চালায় র্যাব ১২ এর সদস্যরা। অভিযানে জুয়ারিদের সাজা প্রদান করেন বগুড়া জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারুফ আফজাল রাজন।

সাজাপ্রাপ্ত জুয়ারিরা হলেন, বগুড়া সদরের উলিপুর এলাকার সামছুল আলমের ছেলে সামিউল আলম সোহাগ (৩৫), দুপচাঁচিয়ার আলতাপ নগরের বাবুর ছেলে মামুন (২৬), একই উপজেলার কুচপুকুরিয়া গ্রামের মোজাম্মেল প্রামানিকের জামাল উদ্দিন প্রামানিক, সদরের মালগ্রামের মিনারুলের ছেলে সেলিম রেজা (৩৮), কাহালু পাল্লাপাড়ার মৃত আফাজ মন্ডলের ছেলে আব্দুল আলিম (৩২), একই উপজেলার লক্ষীীীীপুর মৃত হোসেন আলীর চেলে আনছার আলী (৩৫), সাঘাটিয়ার মৃত আব্দুল রাব্বির ছেলে বাদল মিয়া (৫০), মহরাবারি গ্রামের হবিবরের ছেলে পারুক ইসলাম (২৯), সদরের কুটুরবাড়ি গ্রামের মজিবর রহমানের ছেলে জিয়াউর রহমান (৩৫), গাবতলী উপজেলার মরিয়া গ্রামের মৃত আনছার আলীর ছেলে আব্দুল লতিফ (৪০)।

র্যাব ১২ বগুড়ার কোম্পানী কমান্ডার এএসপি স্বজল কুমার সরকার জানান, বেশ বিছুদিন থেকেই বিষয়টি আমাদের নজরদারিতে ছিলো। আজ অভিযান চালিয়ে ১০ জুয়ারীকে খেলার সময় আটক করা হয়েছে। এখানে আরো কয়েকজন ছিলো আমাদের উপস্থিতি টেরপেয়ে কয়েকজন পালিয়ে গেছে। এসময় তিনি অপরাধ দমনে সমাজের সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।