নোতুন খবর.কম : করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব রোধে বগুড়ায় আগামী ১২জুন থেকে ১৯জুন পর্যন্ত দোকান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ। বগুড়া চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি’র আয়োজনে বুধবার চেম্বার ভবনের সম্মেলন কক্ষে করোনা ভাইরাস সম্পর্কে বিভিন্ন ব্যবসায়ী সমিতির নেতৃবৃন্দের
সঙ্গে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। বগুড়া চেম্বারের সহ-সভাপতি মোঃ মাফুজুল ইসলাম রাজ এর সভাপত্বিতে করোনা ভাইরাস মহামারি আকার ধারণ করায় এর প্রতিকারে সম্ভাব্য কর্মসূচী নিয়ে আলোচনা করা হয়। এ সভায় বগুড়া শহরের বিভিন্ন ব্যবসায়ী সমিতির নেতৃবৃন্দগণ নিজস্ব মতামত ব্যক্ত করেন।

চেম্বারের সহ-সভাপতি মোঃ মাফুজুল ইসলাম রাজ বলেন যে, সম্প্রতি নভেল করোনা ভাইরাস-এর প্রাদুর্ভাবের কারণে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ন্যায় বাংলাদেশের সাধারণ মানুষের দৈনন্দিন জীবন-যাপনসহ অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড সীমিত হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে বগুড়ায় করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা আশংকাজনক হারে বেড়ে গেছে। করোনা ভাইরাস এর প্রাদুর্ভাব দীর্ঘায়িত হওয়ায় যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা না হলে আক্রান্তের সংখ্যা আরো বেড়ে যাবে এবং মানুষের জীবন বিপন্ন হবে। কাজেই স্বাস্থ্যনীতি মেনে চলা, প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাহিরে বের না হওয়া এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা আবশ্যক।

জনসাধারণের প্রয়োজনে শুধুমাত্র ঔষধের দোকান, কাঁচাবাজার ও ফলমূলের দোকান খোলা রাখা যাবে।

বগুড়া জেলা প্রশাসন ও পুলিশ সুপারের সার্বিক সহযোগিতায় আগামী ১২ জুন শুক্রবার থেকে ১৯ জুন পর্যন্ত বগুড়া সকল মার্কেট, বিপনীবিতান ও ফুটপাতের দোকানপাঠ বন্ধ রাখার জন্য চেম্বারকে অনুরোধ জানানো হয়। সময় সল্পতা ও সামাজিক দুরত্ব মেনে মিটিং করার জন্য যে সমস্ত মার্কেট ও ব্যবসায়ী সমিতিকে অবহিত করা হয়নি তাদেরকে উক্ত পরিস্থিতি বিবেচনা করে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ করা হলো। মত বিনিময় সভার সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে বগুড়া জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের সহযোগিতা চাওয়া হয়। সভায় আরো বক্তব্য রাখেন জলেশ্বরীতলা ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এ্যাডোনিস বাবু তালুকদার, বিআরটি মার্কেট সমিতির সভাপতি মোঃ ওমর ফারুক খান, বগুড়া জেলা হোটেল ও মোটেল এসোসিয়েশনের যুগ্ম আহŸায়ক এম.এম. দেলোয়ার হোসেন, বিআরটিসি শপিং কমপ্লেক্স এর সাধারণ সম্পাদক মোঃ নিয়ামুল হক লিটু। এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন বগুড়া জেলা ওয়েল্ডিং ও স্টীল শিল্প মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক
মোঃ শ্রাবণ আবেদিন সনি, পার্ক রোড বনিক সমিতি’র সভাপতি মামনুর রশিদ শাইন, এম এ রসিদ সহ-সাধারণ সম্পাদক, সভাপতি কড়িতলা রেলওয়ে মার্কেট সমিতি’র আলহাজ্ব সাইফুল আলম খোকন, কোষাধক্ষ্য কড়িতলা মার্কেট সমিতির দিপক রায় দিপু, সাধারণ সম্পাদক কড়িতলা মার্কেট সমিতির মোঃ মাসুদুর রহমান বিপ্লব, সাধারণ সম্পাদক নিউ মার্কেট সমিতির মোঃ শামীম সরকার, বৃহত্তর দোকান মালিক সমিতির মোঃ ফিরোজ খান, সভাপতি রেলওয়ে আদর্শ হকার্স মার্কেট সমিতির রফিকুল ইসলাম, সহকারী সাধারণ সম্পাদক হকার্স মার্কেট মালিক সমিতির মোঃ আব্দুল হামিদ, আহম্মেদ মার্কেট বগুড়ার মোঃ মাসুদ রানা দুলাল, টিএমএসএস মার্কেট-এর মোঃ মাসুদ হোসেন, আহম্মেদ মার্কেটের নুরুল ইসলাম নিরু, মোঃ জাকির হোসেন, সাধারণ সম্পাদক রানার প্লাজা দৈনিক সঞ্চয় সমিতির মোঃ সাজ্জাদুর রহমান তুহিন, সাধারণ সম্পাদক টিএমএসএস মার্কেটের মোঃ জাকিরুল ইসলাম মিঠু, সাধারণ সদস্য মোঃ আবু তাহের, আহবায়ক রানার প্লাজা’র রেজয়ানুল ইসলাম, সহ-সভাপতি মোঃ মনির হোসেন, সহ সেক্রেটারী কড়িতলা মার্কেটের মোঃ জাহিদুল ইসলাম মিন্টু, সভাপতি রানার প্লাজা মোঃ আব্দুস সালাম, সহকারী সম্পাদক, রানার প্লাজার ফিরোজ আহম্মেদ, মোঃ মনিরুজ্জামান, রুপালী সুজ এর প্রোপ্রাইটর মোঃ নুরে আলম, নিউ মার্কেট মোঃ আমিরুল ইসলাম, বড় মসজিদ লেন বগুড়ার মোঃ মোশারফ হোসেন, সাধারণ
সম্পাদক বৃহত্তর নিউ মার্কেট ব্যবসায়ী মালিক সমিতির মোঃ রাশেদুল ইসলাম সহ প্রমুখ।