নোতুন খবর.কম :
সিনিয়র ও জুনিয়র আইনজীবীদের সাথে অশোভন আচরণের অভিযোগে বগুড়া জেলা ও দায়রা জজ আদালত অনিদৃষ্ট কালের জন্য বর্জনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে এ্যাডভোকেটরা। বৃহস্পতিবার বিকেলে বগুড়া জেলা অ্যাডভোকেটস্ বার সমিতির তলবি সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। বগুড়া জেলা অ্যাডভোকেটস্ বার সমিতির সভাপতি মোঃ শফিকুল ইসলাম টুকুর সভাপতিত্বে উক্ত সভায় বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র এ্যাডভোকেটস রেজাউল করিম মন্টু, এ্যাড, মকবুল হোসেন মুকুল, এ্যাড. সাইফুল ইসলাম পল্টু, এ্যাড, ওয়াজেদুর রহমান, এ্যাড, নরেশ মুখার্জী, এ্যাড, আশেকুর রহমান সুজন, জেলা অ্যাডভোকেটস্ বার সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোঃ রফিকুল ইসলাম, এ্যাড, তবিবুর রহমান তবি প্রমূখ।
বার সমিতির সভাপতি শফিকুল ইসলাম টুকু জানান, বগুড়ার সিনিয়র ও জুনিয়র আইনজীবীদের সাথে বিভিন্ন সময় অশোভন আচরণ করার  অভিযোগের ভিত্তিতে বার সমিতির পক্ষথেকে তলবী সভার আহবান করা হয়। সভায় ১৮ জন আইনজীবী বক্তব্য রাখেন। এরমধ্যে ১১ জন আগামী রবিবার (১৭/০১/২১) থেকে অনিদৃষ্ট কালের জন্য জেলা ও দায়রা জজ আদালত বর্জনের পক্ষে মতামত দেয়। আর ৮ জন কিছুদিন সময়ের কথা বলে। সভায় বক্তাদের অধিকাংশের মতামতের ভিত্তিতে বার সমিতির পক্ষথেকে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।
গত কয়েকদিন আগে একটি জামিন আবেদনের শুনানীর সময় বগুড়ার সিনিয়র এ্যাডভোকেট রেজাউল করিম মন্টুর সাথে অশোভন আচরণ করে জেলা ও দায়রা জজ। এঘটনায় গত ১১ জানুয়ারি ২৬৯ জন এ্যাডভোকেট স্বাক্ষরিত একটি অভিযোগ বার সমিতিতে দেয়া হয়। ওই অভিযোগের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার বগুড়া জেলা অ্যাডভোকেটস্ বার সমিতির পক্ষথেকে তলবি সভার আয়োজন করা হয়।