নোতুন খবর.কম :
বগুড়ার পুলিশ সুপার মোঃ আলী আশরাফ ভূঞা বিপিএম বার এর সার্বিক দিক নির্দেশনায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আলী হায়দার চৌধুরীর তত্ত্বাবধানে ডিবি, বগুড়ার ইনচার্জ মোঃ আব্দুর রাজ্জাকের নেতৃত্বে টিম ডিবি বগুড়ার অভিযানে ভূয়া ম্যাজিস্ট্রেট এবং ৫০০ গ্রাম গাঁজাসহ ২ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
জেলা গোয়েন্দা পুলিশের পক্ষথেকে জানানো হয়,
বগুড়া গাবতলী উপজেলার মোকামতলা মিরপুর এলাকার মৃত রেজাউল করিম এর স্ত্রী মোছাঃ মাসুমা খাতুন শ্বশুর বাড়ি বগুড়া থেকে বাবার বাড়ি দিনাজপুরে যাওয়ার উদ্দেশ্যে বগুড়া চারমাথা বাস স্ট্যান্ডে আসেন। এসময় মোঃ আতিকুর রহমান ওরফে ফরিদ মিয়া নামে একজন ব্যক্তি নিজেকে সিআইডি ও দুর্নীতি দমন কমিশনের সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট পরিচয় দিয়ে তাহাকে বিভিন্ন বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। তিনি বলেন আপনার মাস্ক কোথায়? আপনি করোনার সময় মাস্ক না পরিধান করে অপরাধ করেছেন। আপনাকে এখনই মোবাইল কোর্টে জরিমানা করা হবে।
ডিবি বগুড়ার একটি চৌকস টিম রোববার বগুড়া সদর থানাধীন চারমাথাস্থ আকবরিয়া টার্মিনাল ক্যাফের সামনে হতে সিআইডির একটি জাল পরিচয়পত্র যাতে ইংরেজিতে C.I.D, MOST WANTED, CRIME INVESTIGATION DEPT., Name: Atikur Rahman, Rank: Asst. commissioner and Executive Magistrate; দুর্নীতি দমন কমিশনের একটি জাল পরিচয়পত্র যাতে দুর্নীতি দমন কমিশন IDENTITY CARD, Name: Atikur Rahman, Designation: Asst. commissioner and Executive Magistrate, একটি জাল জাতীয় পরিচয়পত্রসহ উক্ত প্রতারক রংপুরের মিঠাপুকুর থানার বড় হযরতপুর বুজরুক নূরপুর এলাকার মোঃ আব্দুর রউফ ওরফে আব্দুস সাত্তার এর ছেলে মোঃ আতিকুর রহমান ওরফে ফরিদ মিয়া(২৭)কে গ্রেফতার করে।
অন্যদিকে ডিবি বগুড়ার অপর একটি টিম একই দিনে বগুড়া সোনাতলা থানার মধুপুর ইউনিয়নের হরিখালী বাজার এলাকা হতে ৫০০ গ্রাম গাঁজাসহ
সোনাতলার হাসরাজ এলাকার মৃত আফসার মন্ডল এর ছেলে মোঃ জাহিদুল ইসলাম(৩৭), ও মোঃ ইব্রাহিম মন্ডল এর ছেলে মোঃ রেজাউল করিম(৩৪)কে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত আসামীগণের বিরুদ্ধে বগুড়া সদর ও সোনাতলা থানায় নিয়মিত মামলা রুজু করা হয়েছে।