ডেস্ক :
বগুড়া মোটর মালিক গ্রুপের নামে আহুত সাধারণ সভা বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে জেলা প্রশাসন। শুক্রবার (১ জানুয়ারি) জেলা প্রশাসনের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ও মোটর মালিক গ্রুপের প্রশাসক ওই সাধারণ সভা বন্ধের জন্য নির্দেশনা জারি করেছেন।
জেলা প্রশাসনের নির্দেশনায় বলা হয়েছে গত ২৩ ডিসেম্বর স্থানীয় পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দিয়ে বগুড়া জেলা মোটর মারিক গ্রুপের নামে সাবেক সভাপতি আকতারুজ্জামান ডিউক এবং সাবেক সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম ২ জানুয়ারি চারামাথা মেঘসিটিতে সাধারণ সভা আহবান করে। চিঠিতে বলা হয় হাইকোর্টের রিট পিটিশন এবং বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের পত্রের প্রেক্ষিতে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট গত ৬ ডিসেম্বর বগুড়া জেলা মোটর মালিক গ্রুপের প্রশাসক হিসেবে দায়িত্বভার গ্রহণ করেছেন। বিধি মোতাবেক দায়িত্ব গ্রহণের ১২০ দিনের মধ্যে প্রশাসক হিসেবে নির্বাচনের সকল কার্যক্রম সম্পন্ন করতে হবে। সে মোতাবেক বগুড়া জেলা মোটর মালিক গ্রুপের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন কার্যক্রম প্রক্রিয়া চলমান। নির্বাচন কার্যক্রম চলমান থাকা অবস্থায় সংগঠনের নামে কোন পক্ষ সভা আহবান কিম্বা নির্বাচনের স্বাভাবিক কার্যক্রম ব্যাহত হয় এমন কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করতে পারে না। সে মতে মোটর মালিক গ্রুপের নামে আহুত আগামী ২ জানুয়ারি সাধারণ সভা বন্ধ করতে বলা হলো। অন্যথায় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বগুড়া জেলা মোটর মালিক গ্রুপের আহুত সাধারন সভা নিয়ে গত বছরের শেষ দিনে ৩১ ডিসেম্বর দুই গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। এক পক্ষ সাধারন সভা আহবান করলে অপর পক্ষ যেকোন মুল্যে সভা প্রতিহত করার ঘোষনা দেন। ফলে উত্তেজনা দেখা দিলে জেলা প্রশাসন কথিত সাধারন সভা বন্ধে নির্দেশনা জারী করেন।
মোটর মালিক গ্রুপের ২ পক্ষের মধ্যে একপক্ষের নেতৃত্বে আছেন মালিক গ্রুপের সাবেক আহ্বায়ক জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মঞ্জুরুল আলম মোহন, অপর পক্ষে রয়েছেন মোটর মালিক গ্রুপের সাবেক সভাপতি আওয়ামী লীগ নেতা শাহ মো. আখতারুজ্জামান ডিউক।

জেলা প্রশাসনের নির্দেশনা জারি হওয়ায় মামলার বাদী ও বগুড়া মোটর মালিক গ্রুপের সাবেক আহবায়ক মঞ্জুরুল আলম মোহন বলেন, আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। জেলা প্রসাশন নির্দেশনাকে সাধুবাদ জানাই। মোটর মালিক গ্রুপের নির্বাচনে জেলা প্রশাসনকে সার্বিক সহযোগিতা করবো।