নোতুন খবর.কম : বগুড়া সারিয়াকান্দি বি,এন,পির সদ্য গঠনকৃত দুর্বল পকেট আহবায়ক কমিটি গঠন করার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। শনিবার দুপুরে বগুড়া প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এ্যাড, নুর এ আলম বাবু। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, সর্বপরি যাদের এই কমিটিতে আহব্বায়ক ও যুগ্ম আহব্বায়ক করা হয়েছে তাদের বাড়ী সদর উপজেলা হতে
কম পক্ষে ২০ কিঃ মিঃ দক্ষিণ দিকে। যুগ্ম সম্পাদক সাহেবের স্থায়ী নিবাস ধুনট থানার গোসাই বাড়ী বাজারে এবং আহব্বায়ক সাহেবের এলাকায় কোন জমি জমা বা বাড়ী ঘর নাই । সমস্ত কিছু বিক্রয় করিয়া তিনি এক যুগের বেশী সময় কাল বর্তমান বগুড়া জেলার ২০ নং ওয়ার্ডের কৈপাড়া নামক স্থানে বাড়ী করে অবস্থান করছেন।
তিনি বলেন, ইতিপূর্বে বহুবার রাজনৈতিক কারনে ও স্থানীয় রাজনীতির উন্নয়ন কল্পে, কেন্দ্রিয় সিদ্ধান্ত মতে উপজেলায় সরাসরি নির্বাচনসহ, মনােনিত ব্যক্তিদের দ্বারা কমিটি গঠিত হয়েছে । কিন্তু এবারই প্রথম দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দোহাই দিয়ে একটি মহল একব্যাক্তির রাজনীতিকে প্রতিষ্টিত করার চেষ্টা করছে।
উপজেলা নেতাদের ৫টি দাখিলকৃত কমিটির মধ্যে কোন সদস্য না নিয়াই শুধু তাদের দ্বারা দাখিলকৃত আহবায়ক কমিটির অনুমােদন করেছেন বর্তমান জেলা বি,এন,পির আহবায়ক এবং যুগ্ম আহবায়ক বৃন্দ।ইতিপুর্বে একাধিকবার এই ব্যক্তিগন কোন এক অজানা কারনে, বি,এন,পির রাজনীতিকে ধ্বংস করার লক্ষে প্রত্যেক বার ধাপে ধাপে দুর্বল লােক দ্বারা দুর্বলতম কমিটি করে। দুর্বল কমিটির সুপারিশ করছে তারা ইতি পূর্বে ১০ বৎসর দলের সংগে সম্পৃক্ত ছিল না। এখানে আপনাদের মাধ্যমে দেশবাসীকে জানান দরকার যে, বর্তমান সারিয়াকান্দির আহবায়ক কমিটির ৩নং সদস্য সারিয়াকান্দির ভােটার না ।
১। শাহজাহান আলী সাজা বগুড়া পৌর সভার ৬নং ওয়ার্ডের ভােটার ও বগুড়া শহর বি, এন, পির আহব্বায়ক কমিটির সদস্য।
২। ১১নং সদস্য আব্দুল কুদুস সরকার বি,এন,পি হতে দলীয় শৃংখলা ভংগের দায়ে বহিস্কৃত । আঃ কুদুস সরকার বর্তমানে আওয়ামী কর্মী । তাছাড়াও এলাকার অজানা অচেনা, অরাজনৈতিক ব্যক্তিদের দ্বারা কমিটি গঠন করা হয়েছে। যারা বর্তমানে রাজনৈতিক যে কোন প্রেক্ষাপটে কোন অবস্থাতেই সারিয়াকান্দির রাজনীতির পক্ষে কোন আন্দোলন সংগ্রামে দলের পক্ষে দাড়ানাের যােগ্যতা রাখে না।
তিনি বলেন, সাবেক একজন সভাপতি ও ১ জন সাধারন সম্পাদক ছাড়া সদ্য বিলুপ্ত সারিয়াকান্দি উপজেলা বি, এন, পির সভাপতি সুজাউদ্দৌলা সনজু ও সাধারণ সম্পাদক নুফুল হায়দার রুমি এবং সাংগঠনিক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম সহ অন্য কোন সাবেক সভাপতি/সাধারন সম্পাদক কে এই কমিটিতে স্থান দেওয়া হয় নাই । ইতি পূর্বে বিএনপির কমিটির ৫ জন আইনজীবি থাকলেও এই আহব্বায়ক কমিটিতে ১ জন আইনজীবিও নাই । বি, এন, পির নেতা কর্মি যারা একাধিক মামলার আসামী ও দির্ঘ কারাভােগকারী তার এই আহব্বায়ক
কমিটির সদস্য নাই । সাবেক যুবদলের সভাপতি, রফিকুল ইসলাম ও মােজাফফর রহমান সহ ত্যাগী তক্কালিন যুব নেতাদের ও স্থান দেওয়া হয় নাই। এমন কি সাবেক সভাপতি ও উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান ও জেলার সাবেক শ্রমিক দলের সভাপতি মাসদর রহমান হিরু মন্ডল, সাবেক সাধারন সম্পাদক আমিরুল মােমিন পিন্টু, এ্যাডঃ নুর-এ-আজম বাবু, আঃ খালেক খান এবং পৌর বি, এন, পির সাবেক সভাপতি/সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদক এবং সদ্য বিলুপ্ত সকল ইউনিয়নের কোন সভাপতি/সাধারন সম্পাদক কে এই আহব্বায়ক কমিটিতে সদস্য করা হয় নাই ।
তিনি আরো বলেন, আমরা সারিয়াকান্দি বাসী ও বি,এন,পির কর্মী সমর্থকগন এই আহব্বায়ক কমিটি গঠনের তীব্র প্রতিবাদ করিতেছি এবং অচিরেই এই আহব্বায়ক কমিটি বাতিল সহ নতুন করিয়া সকলের প্রহনযােগ্য কমিটি উপহার দেওয়ার জন্য, দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপাসন সহ সকলের দৃষ্টি আকর্শন করছি।