ডেস্ক : বদলে যাচ্ছে ঢাকা রেঞ্জের ১৩ জেলার ৯৬ থানার চালচিত্র। নবনিযুক্ত ডিআইজি মো. হাবিবুর রহমান পরিকল্পিতভাবে থানায় আসা জনসাধারণকে পুলিশি সেবা নিশ্চিতের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করছেন।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, সম্প্রতি পুলিশ সদর দপ্তর থেকে বদলি হয়ে ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হিসেবে যোগ দেন মো. হাবিবুর রহমান। এরপরই তিনি রেঞ্জের ১৩ জেলার ৯৬ থানায় বিদ্যমান নানা জটিলতা দূর করার উদ্যোগ নেন। এরই অংশ হিসেবে রেঞ্জের ৯৬ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের (ওসি) প্রশিক্ষণ দেন। প্রশিক্ষণের উদ্দেশ্য ছিলো, ওসিদের দক্ষতা বাড়ানো, যেন তারা থানায় আসা মানুষের সঙ্গে সদাচারণ করেন। থানায় আগতরা যেন পুলিশের আচরণে সন্তুষ্ট থাকেন। কেউ জিডি করতে এলে তাকে হাসিমুখে চকলেট ও ফুল দিয়ে বরণ এবং সমস্যা শুনে জিডি এন্ট্রি করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেন। ঢাকা রেঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নুরুল আলম বলেন, ডিআইজির উদ্দেশ্য হচ্ছে- নতুন কিছু করা, জনবান্ধব পুলিশ বাহিনী হিসেবে ঢাকা রেঞ্জের ১৩ জেলাকে গড়ে তোলা। তিনি বলেন, ভিসেরা রিপোর্ট বছরের পর বছর পরে থাকায় হত্যা মামলার নিস্পত্তি হতে দেরি হতো। আর এতে হত্যাকারীরা আইনের ফাঁক গলে বের হয়ে যেতেন। মামলার বাদীরা হতাশায় ভুগতেন। ডিআইজি যোগদানের পরই এ সমস্যাটি চিহ্নিত করেন এবং দ্রæততম সময়ের মধ্যে ব্যক্তিগত উদ্যোগে ১০৩টি ভিসেরা রিপোর্ট সংগ্রহ করে স্ব স্ব থানায় পাঠানোর ব্যবস্থা করেন। তিনি আরও বলেন, ওসি ছাড়াও এএসপি সার্কেল, অতিরিক্ত এসপি, কোর্ট ইন্সপেক্টর এবং ট্রাফিক ইন্সপেক্টরদের প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। কোর্ট ইন্সপেক্টরদের প্রশিক্ষণের ফলে লব্ধ অভিজ্ঞতা তারা আদালতে মামলা পরিচালনার ক্ষেত্রে কাজে লাগাবেন। আদালতে চার্জগঠনের পর কোর্ট ইন্সপেক্টররা আরো দক্ষতার সঙ্গে মামলা পরিচালনা এবং সাক্ষীদের প্রয়োজনের সময় আদালতে হাজির করে আসামিদের শাস্তি নিশ্চিত করতে পারবেন।