সুদর্শন কর্মকার, রাণীনগর (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ নওগাঁর রাণীনগরে পারিবারিক কলহের জের ধরে বাবা-মা’র উপর অভিমান করে বিষাক্ত উকুন মারা ঔষুধ খেয়ে শারমিন আক্তার (২০) নামে এক মাদ্রাসা ছাত্রী আত্মহত্যা করেছে। ঘটনাটি ঘঠেছে উপজেলার রাতোয়াল প্রামানিক পাড়া গ্রামে।
বুধবার দুপুরে শারমিন আক্তারের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।
নিহত শারমিন উপজেলার রাতোয়াল প্রামানিক পাড়া গ্রামের বাবু প্রামানিকের মেয়ে এবং আবাদপুকুর দারুল উলুম এতিমখানা মাদ্রাসার
দাওরাতে পড়ুয়া ছাত্রী।
রাণীনগর থানার ওসি শাহিন আকন্দ নিহতের পরিবারের বরাদ দিয়ে বলেন, লেখাপড়া নিয়ে পারিবারকি কলহের জের ধরে বাবা-মা’র উপর অভিমান করে শারমিন আক্তার মঙ্গলবার সকালে বিষাক্ত উকুন মারা ঔষুধ খান। বিষয়টি পরিবারের লোকজন জানতে পেরে চিকিৎসার জন্য প্রথমে শারমিনকে রাণীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে নওগাঁ সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিসিৎসা সেবা দিয়ে বাড়িতে নেওয়া হয় শারমিনকে। বুধবার সকালে বাড়িতে মৃত্যু হয় শারমিনের।
ওসি আরো বলেন, এ ঘটনায় শারমিনের বাবা বাবু প্রামানিক বাদি হয়ে থানায় একটি ইউডি মামলা দায়ের করেন। রাণীনগর থানা পুলিশ শারমিনের মরদেহ উদ্ধার করে বুধবার দুপুরে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেন।