নোতুন খবর.কম :
বগুড়ায় বিদেশ থেকে পাঠানো টাকা হত্যা করে লাশ গুম করার হুমকি ও মারপিটের প্রতিবাদ জানিয়ে এবং আসামীদেরকে গ্রেফতারের দাবী জানিয়েছেন এক ভুক্তভোগী।
রবিবার দুপুরে বগুড়া প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন বগুড়া গাবতলীর মধ্যকাতুলি গ্রামের মৃত বাবর আলীর ছেলে মো. রহিদুল ইসলাম।
লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, বিগত ১০ বৎসর মালয়েশিয়ায় কর্মরত থাকাকালিন সমস্ত আয় রোজগারের টাকা আপন সহোদর ভাই শাহিদুল ইসলামের কাছে পাঠায়। পরবর্তীতে ২০১৮ সালে দেশে স্থায়ী ভাবে চলে টাকা পয়সা ফেরত চায়। কিন্তু বড়ভাই টাকা ফেরত না দিয়ে আত্মসাৎ করে আরো এক ভাই জাহিদুল ইসলাম, ভাতিজা সানিফ প্রাং ও ভাবি শান্তনা বেগম সহ আরো অন্যান্যরা মিলে টাকা ফেরত চাইলে হত্যা করে লাশ গুম করা হবে বলে হুমকি প্রদান করে।
এমতাবস্থায় গত ৮জুন হঠাৎ করেই আমার বাড়িতে এসে ভাই শাহিদুল ইসলাম, জাহিদুল ইসলাম ও ভাতিজারা মিলে আমাকে মারপিট করতে থাকে। তখন আমার চিৎকারে আমার মা স্ত্রীসহ অন্যরা এগিয়ে আসলে আসামীরা তাদেরকেও বেদম মারপিট করে। সেসময় আমার মা ও স্ত্রীর গলায় থাকাা স্বর্ণের চেন, ঘরের আলমারিতে রক্ষিত ১ লক্ষ ৩৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। তারা চলে যাওয়ার সময় আমার বাড়ির দরজা জানালা ও ঘরের আসবাবপত্র ভাংচুর করে। গত ১০ই জুন আমি উপরেল্লিখিতদের বিরুদ্ধে বগুড়া গাবতলী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেছি, যার নং-১৭০/সি-২১ইং যা এখন তদনান্তীধীন আছে।
তিনি দ্রুত আসামীদেরকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসার জোর দাবী জানান।