ডেস্ক : সৌদি আরবের পবিত্র মক্কায় হজ ও ওমরাহ পালনের জন্য প্রতিবছর লাখ লাখ মানুষের সমাগম হয়। তাই আগত মুসলিমদের সুবিধার্থে কাবা শরীফ এলাকায় তৈরি করা হচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ছাতা।

জানা যায়, কাবা শরীফ আঙিনায় মোট ৮টি ছাতা তৈরি করা হচ্ছে। যার একেকটির নিচে অবস্থান নিতে পারবেন ২৫০০ মানুষ। মরুভূমির তাপদাহ থেকে হাজিদের সুরক্ষা ও আরামদায়ক পরিবেশ দিতেই এ পদক্ষেপ নিয়েছে সৌদি সরকার।

২০১৪ সালে শুরু হওয়া ছাতাগুলোর নির্মাণ কাজ শেষ হবে ২০২০ সালের শেষ দিকে। আর এটাই হবে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ছাতা।

এক একটি ছাতার ওজন হবে প্রায় ১৬ টনের মত। দৈর্ঘ্য ও প্রস্থে ছাতাগুলো হবে ৫৩ মিটার করে। মাটি থেকে ৩০ মিটার উচ্চতায় ছাতাগুলো স্থাপন করা হবে। একটি ছাতার পরিধি হবে ২ হাজার ৮০৯ বর্গমিটার। ছাতা বানানোর কাজটি করছে জেনারেল প্রেসিডেন্সি টু হলি মস্ক নামেক এক নির্মাণ প্রতিষ্ঠান। ছাতাগুলো তৈরির প্রযুক্তি ও নকশা জাপান থেকে নেয়া হয়েছে।

নির্মাণাধীন ৮টি ছাতার সাথে কাবার শরীফের আঙিনায় আরও ৫৪টি ছাতা রয়েছে। কিন্তু ঐ ছাতা গুলো তুলনামূলক বেশ ছোট। প্রকল্পটির কাজ শেষ হলে ছাতাগুলো নিচে একসাথে ৪ লাখ মুসল্লি নামাজ পড়তে পারবেন।