ডেস্ক : ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর পদত্যাগের দাবি উঠেছে দেশটির পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ রাজ্যসভা ও নিম্নকক্ষ লোকসভায়। আজ সোমবার সংসদ অধিবেশন শুরু হলে এমন দাবি করেন কংগ্রেস, তৃণমূল, আপ, বিএসপিসহ অধিকাংশ বিরোধী দলের সাংসদরা।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়, দিল্লির সাম্প্রদায়িক সহিংসতার পর আজ বাজেট অধিবেশনের দ্বিতীয় পর্ব শুরু হয়। অধিবেশনের শুরুতেই দিল্লির সহিংসতা নিয়ে তুমুল উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে সংসদে। বিরোধীদের হট্টগোলের মধ্যেই রাজ্যসভা মুলতবি ঘোষণা করা হয়েছে।

লোকসভার অধিবেশনও দফায় দফায় মুলতবি করা হয়। এ সময় ব্যর্থতার দায় নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর পদত্যাগের দাবিতে সোচ্চার হন বিরোধী দলের সাংসদরা।

এ ছাড়া দিল্লিতে ভয়াবহ সহিংসতার ঘটনায় দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে স্টেটমেন্ট (বিবৃতি) দেওয়ারও দাবি করা বিরোধীদের পক্ষ থেকে।

আনন্দবাজারের প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, এদিন লোকসভার বাইরে গান্ধী মূর্তির পাদদেশে চোখে কালো কাপড় বেঁধে দিল্লি সহিংসতার প্রতিবাদ করেন তৃণমূল সংসদ সদস্যরা। সেই বিক্ষোভে যোগ দেন কংগ্রেসের এমপিরাও। তারা গান্ধীজির তিন বাঁদরের অনুকরণে প্রতিবাদে শামিল হন।

প্রসঙ্গত, ভারতের বিতর্কিত সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনকে (সিএএ) কেন্দ্র করে ওই সহিংসতার ঘটনা ঘটে দিল্লিতে। এতে এখন পর্যন্ত ৪৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। নিহতদের মধ্যে অধিকাংশই মুসলমান। এ ছাড়া স্থানীয় মুসলমানদের বাড়িঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান জ্বালিয়ে দেয় ক্ষমতাসীন বিজেপির সমর্থকরা।