ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্র-মেক্সিকো সীমান্ত ঘেঁষা ক্যালিফর্নিয়া রাজ্যের স্যান ডিয়াগো শহরে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে সবচেয়ে দীর্ঘতম সুড়ঙ্গ পথ আবিষ্কৃত হয়েছে। সুড়ঙ্গটি চোরাচালানের জন্য ব্যবহৃত হতো। বুধবার এ সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে মার্কিন গণমাধ্যম ইউএসএ টুডে।

এতে বলা হয়েছে, সুড়ঙ্গটি ৪ হাজার ৩০৯ ফুট দীর্ঘ। এতে লিফট, রেলপথ এমনকি পয়ঃনিষ্কাশনের ব্যবস্থাও রয়েছে। মেক্সিকোর টিজুয়ানা সিটি থেকে সুড়ঙ্গটি ক্যালিফোর্নিয়ার স্যান ডিয়াগো শহর পর্যন্ত বিস্তৃত। সম্প্রতি এটি আবিষ্কার করেছে যুক্তরাষ্ট্রের বর্ডার পেট্রোল বাহিনী।

ইউএসএ টুডে জানায়, ৫ ফুট উঁচু ও ২ ফুট চওড়া সুড়ঙ্গটি মাটির ৭০ ফুট নিচ দিয়ে মেক্সিকো থেকে যুক্তরাষ্ট্রে এসেছে। এটি যুক্তরাষ্ট্র ও মেক্সিকোতে থাকা চোরাচালানকারীরা ব্যবহার করতো। তবে এ ঘটনায় কেউ আটক হয়নি। কর্তৃপক্ষের ধারণা, এটি দিয়ে মেক্সিকো থেকে যুক্তরাষ্ট্রে মাদক পাচার করা হতো।

এ বিষয়ে স্যান ডিয়াগো শহরের হোমল্যান্ড সিকিউরিটি প্রধান ক্যাডরেল মোরান্ট বলেন, ক্যালিফোর্নিয়ায় মেক্সিকো-যুক্তরাষ্ট্র সীমান্তে সুড়ঙ্গের ঘটনা নতুন কিছু নয়। এসব সুড়ঙ্গ ব্যবহার করে মাদক ব্যবসায়ীরা মাদক চোরাচালান করে থাকেন।

এর আগে ২০১৪ সালে স্যান ডিয়াগোতেই আরেকটি সুড়ঙ্গের সন্ধান পাওয়া যায়। যার দৈর্ঘ ছিল ৩ হাজার ২৫৯ ফুট। তখন সেটিই ছিল যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে দীর্ঘ চোরাচালান সুড়ঙ্গ। নতুন সুড়ঙ্গটি আবিষ্কার হওয়ায় সেটি দ্বিতীয় অবস্থানে চলে গেল।