ডেস্ক : যুদ্ধংদেহীভাবে রুশ যুদ্ধজাহাজটি দ্রুত গতিতে যুক্তরাষ্ট্রের ইউএসএস ফ্যারাগাটের দিকে এগিয়ে আসে। এতে রণতরীটি প্রায় ১৮০ ফুটের মধ্যে চলে এসেছিল। এরপর সেটির চলার গতি পরিবর্তন করে। উত্তর আরব সাগরে বৃহস্পতিবার যখন এই ঘটনা ঘটে তখন যুক্তরাষ্ট্রের নৌযান থেকে দেয়া হুশিয়ারিও গ্রাহ্য করেনি তারা। এতে প্রায় সংঘর্ষ লাগার ঝুঁকি তৈরি হয়েছিল বলে শুক্রবার মার্কিন নৌবাহিনী জানিয়েছে।

এ ঘটনার একটি ভিডিও হাতে পেয়েছে মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএন। এতে দেখা গেছে, রুশ যুদ্ধজাহাজটি দ্রুত গতিতে যুদ্ধংদেহীভাবে যুক্তরাষ্ট্রের ইউএসএস ফ্যারাগাটের দিকে এগিয়ে আসে। এতে রণতরীটি প্রায় ১৮০ ফুটের মধ্যে চলে এসেছিল। এরপর সেটির চলার গতি পরিবর্তন করে।

এক বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্রের পঞ্চম নৌবহর জানায়, ওই পরিস্থিতিতে মার্কিন ডেস্ট্রয়ার ইউএসএস ফ্যারাগট পাঁচবার বিপদসঙ্কেত জানিয়ে রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজটিকে গতিপথ পরিবর্তন করার অনুরোধ জানায়।

তারা জানায়, প্রথমে রাশিয়ার জাহাজটি গতিপথ পরিবর্তন করতে অস্বীকার করে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত গতিপথ পরিবর্তন করায় দুটি জাহাজ পরস্পরের কাছ থেকে দূরে সরে যায় এবং সংঘর্ষের ঝুঁকি থেকে রক্ষা পায়।

মার্কিন পঞ্চম নৌবহরের অভিযোগ অস্বীকার করেছে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।

মার্কিন নৌবাহিনীর জাহাজটিই রাশিয়ার জাহাজটির পথ আড়াআড়িভাবে অতিক্রম করে সামনে চলে আসে বলে তাদের দেয়া এক বিবৃতিতে পাল্টা অভিযোগ করা হয়েছে।

রাশিয়ার অভিযোগ, মার্কিন ডেস্ট্রয়ারের এ ধরনের পদক্ষেপ অপেশাদারী। এটি আন্তর্জাতিক সামুদ্রিক নিরাপত্তা নীতির ইচ্ছাকৃত লঙ্ঘন।