নোতন খবর.কম : রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের কলেজগুলোর জিপিএ-৫ প্রাপ্তিতে এবছরেও বগুড়ার শীর্ষস্থানে রয়েছে। জিপিএ ৫ প্রাপ্তিতে শর্ষিস্থান পেলেও বগুড়া অনেক সরকারি কলেজই এবার শতভাগ পাশের কৃতিত্ব দেখাতে পারেনি। এবার রাজশাহী জেলার কলেজগুলো থেকেই সর্বাধিক ৮২ দশমিক ৭৪ শতাংশ শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে বগুড়ার কলেজগুলো। এ জেলার কলেজগুলো থেকে ৮১ দশমিক ১৮ শতাংশ শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়েছে।
শতভাগ পাশের হার অর্জন করতে না পারলেও জিপিএ-৫ প্রাপ্তিতে বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজ জেলায় শীর্ষস্থান দখল করেছে। এই কলেজ থেকে এবার ১ হাজার ৫২৬জন পরীক্ষা দিলেও পাশের হার দাঁড়িয়েছে ৯৯ দশমিক ৪৮ শতাংশ। ৮ জন পাশ করতে পরেনি। পাশ করা শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৮৬১ জন জিপিএ-৫ পেয়েছে। বগুড়ার পল্লী উন্নয়ন একাডেমি (আরডিএ) ল্যাবরেটরি স্কুল ও কলেজ থেকে অংশ নেওয়া ২১৭ শিক্ষার্থীর সবাই পাশ করেছে। এ কলেজ থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১১৮ জন। বগুড়া ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজের ৭৬১ শিক্ষার্থীর সবাই পাশ করেছে। এর মধ্যে ৩৮২জন জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে। বিয়াম মডেল স্কুল ও কলেজ থেকে পরীক্ষায় অংশ নেওয়া ৩০১ শিক্ষার্থীর সবাই পাশ করেছে। তাদের মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে ১৪৫ জন। আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন পাবলিক স্কুল ও কলেজ থেকে এইচ এস সিতে অংশ নেয়া ৩৯২ জন শিক্ষার্থীর সবাই পাশ করেছে। উত্তীর্ণ মধ্যে ১৩৫ জন জিপিএ-৫ পেয়েছে। এসওএস হারম্যান মেইনার স্কুল ও কলেজের শতভাগ শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়েছে। ৫৩ শিক্ষার্থীর মধ্যে ৫জন জিপিএ-৫ পেয়েছে। সরকারি শাহ্ সুলতান কলেজে এবার পাশের হার ৯৬ দশমিক ৮৪। ১ হাজার ৬৭৫জন শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ১ হাজার ৬২২জন। উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে ১৯৫জন জিপিএ-৫ পেয়েছে। বগুড়া পুলিশ লাইন্স স্কুল ও কলেজর ১৫৪ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ১৭ জন জিপিএ-৫ পেয়েছে। পাশের হার শতভাগ। সরকারি মুজিবুর রহমান মহিলা কলেজ থেকে পরীক্ষায় অংশ নেয়া ১ হাজার ৪২৬ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ১ হাজার ৩৮৪জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১১৫জন। বগুড়া সরকারি কলেজের মোট ৮৪৩ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৭৩০জন। তাদের মধ্যে মাত্র ১ দশমিক ৭৮ শতাংশ জিপিএ-৫ পেয়েছে। জাহিদুর রহমান মহিলা ডিগ্রি কলেজ থেকে ২৪৭ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পাশ করেছে ২১৯ জন। ফেল করেছে ২৮ জন। জিপিএ ৫ পেয়েছে ৩ জন। ছয়পুকুরিয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ থেকে ৬৬ জন শিক্ষার্থী এইচ এস সি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পাশ করেছে ৫৯ জন। একলেজ থেকে কেউ জিপিএ ৫ পায়নি।