সুদর্শন কর্মকার,রাণীনগর (নওগাঁ) প্রতিনিধি : নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার কাশিমপুর ইউনিয়নে অবৈধভাবে মোজাফ্ফর হোসেন নিকাহ রেজিস্ট্রি করছেন এমন অভিযোগ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর দায়ের করা হয়েছে। মোজাফ্ফর হোসেনকে “ভুয়া” নিকাহ রেজিস্ট্রার হিসেবে আখ্যায়িত করে বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই ইউনিয়নের “বৈধ” নিকাহ রেজিস্ট্রার দাবিদার বেলাল হোসেন এই অভিযোগ দায়ের করেছেন।
অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, রাণীনগর উপজেলার ২নং কাশিমপুর ইউনিয়নের নিকাহ রেজিস্ট্রার মোজাফ্ফর হোসেনের লাইসেন্স গত ২০১১ ইং সালের ২০ ফেব্রুয়ারী বাতিল হয়। এর পর বাংলাদেশ সরকারের আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রনালয় কর্তৃক বিচার শাখা ৭ হতে একই বছরের ৬ সেপ্টেম্বর বেলাল হোসেন নিয়োগ পান। এর পর মোজাফ্ফর হোসেন ওই বছরেই হাইকোর্ট বিভাগে দুইটি মামলা দায়ের করেন। যাহার মামলা নং ৭৬৯/১১ ও ১০২৩৯/১১। অভিযোগে বেলাল হোসেন দাবি করে বলেন,চলতি বছরের ২২জুন মোজাফ্ফরের দায়ের করা দুইটি মামলা হাইকোর্ট বিভাগের ২০ নং কোর্টে বিচারপতি জনাবা নায়মা হায়দার এবং বিচারপতি জনাব মো: খায়রুল আলম খারিজ করে দেন। কিন্তু লাইসেন্স বাতিল হওয়া চিঠি অনুযায়ী তার নিকাহ রেজিস্ট্রার ও নথিপত্র অফিসে জমা দেয়ার নির্দেশ থাকলেও এখন পর্যন্ত নথিপত্র জমা না দিয়ে এবং কাউকে তোয়াক্কা না করে নিকাহ রেজিস্ট্রি কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছেন। এতে সাধারণ মানুষ প্রতারিত হচ্ছে। তাই সাধারণ মানুষকে প্রতারনার হাত থেকে রক্ষা করতে এবং মোজাফ্ফর হোসেনের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে বৃহস্পতিবার দুপুরে রাণীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগে দায়ের করেছেন। এব্যাপারে মোজাফ্ফর হোসেন সাংবাদিকদের বলেন,গত ২২জুন মামলার দিন ধার্য ছিল। কিন্তু কি হয়েছে তা বলতে পারছিনা। তবে মামলা খারিজ বা নিকাহ রেজিস্ট্রি বই,নথিপত্র জমা দেয়ার কোন চিঠিপত্র পাইনি। যদি মামলা খারিজই হয়ে থাকে তাহলে আপিল করা হবে।
রাণীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুশান্ত কুমার মাহাতো বলেন, মোজাফ্ফর হোসেনের বিরুদ্ধে বেলাল হোসেন একটি লিখিত অভিযোগ
দিয়েছেন। বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।