ডেস্ক:
হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক বৃহস্পতিবার দুপুরে ফেসবুক লাইভে এসে বক্তব্য দিয়েছেন। সেখানে তিনি স্বীকার করেছেন, গত কয়েক দিন যেসব ফোনালাপ ফাঁস হয়েছে এসব তারই ছিল।
তিনি বলেন, আমার স্ত্রীর সঙ্গে ফোনালাপ, আমার স্ত্রীদের সঙ্গে আমার কথোপকথন; এগুলো একান্তই আমার ব্যক্তিগত বিষয় এবং আমার পরিবারিক বিষয়। অত্যন্ত দুঃখ ও পরিতাপের সঙ্গে বলতে হচ্ছে, আমার ব্যক্তিগত গোপনীয়তাকে মারাত্মকভাবে ক্ষুণ্ণ করা হয়েছে। যারা ব্যক্তিগত আলাপচারিতাকে জনসম্মুখে প্রকাশ করে আমার নাগরিক অধিকার, আমার ধর্মীয় অধিকার, আমার ব্যক্তি স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করেছেন- তারা প্রচলিত আইনে চরম অপরাধ করেছেন এবং তারা ইসলামি শরিয়তের আলোকেও অনেক বড় অন্যায় এবং অপরাধ করেছেন। ইসলামী শরিয়তের বিধান লঙ্ঘন করার কারণে আল্লাহর আদালতে আমি বিচার দায়ের করবো।
একের পর মামুনুলের ফোনালাপ ফাঁস হওয়ার পর অনেকে সন্দেহ ছিল- এটি সত্যি তার কথোপকথন কি-না। না-কি কেউ এসব তৈরি করেছেন। তবে বৃহস্পতিবার মামুনুলের বক্তব্যের পর ফোনালাপ যে তারই সে বিষয়ে কোনো সংশয় থাকলো না।
হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক বলেছেন, ইসলামে চারটি বিয়ের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। দেশের আইনেও চার বিয়েতে নিষেধাজ্ঞা নেই। কাজেই আমি দ্বিতীয় বিয়ে করেছি এতে কার কী? যদি আমি স্ত্রীদের কোনো অধিকার থেকে বঞ্চিত করে থাকি, তবে আমার বিরুদ্ধে আমার পরিবার অভিযোগ দিতে পারে। কিন্তু আজ পর্যন্ত কেউ কি দেখাতে পারবে যে আমার পরিবার কোনো বিষয়ে আমার বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ দিয়েছে?