প্রতিনিধি:
নিজের মেয়ের ধর্ষকদের ফাঁসির দাবিতে বগুড়ার ধুনট উপজেলায় শহীদ মিনারে পোষ্টার বুকে নিয়ে এক ঘন্টা একাই দাড়ালেন বাবা। মঙ্গলবার দুপুর ১২টা থেকে একটা পর্যন্ত ধুনট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে ধর্ষকদের ছবি সম্বলিত পোস্টার হাতে নিয়ে মুখে কালো কাপড় বেঁধে দাঁড়িয়ে থাকেন তিনি।

এ সময় সাংবাকিদের জানান, তার মেয়ে (১২) স্থানীয় একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণিতে লেখাপড়া করে। তিনি জীবিকার তাগিদে স্ত্রীকে নিয়ে ঢাকায় বসবাস করেন। একারনে তার মেয়ে ধুনটে তার দাদা-দাদির কাছে থেকে লেখাপড়া করে। গত ৬ জুন রাত ১০টার দিকে তার মেয়ে দাদার ঘরে টিভি দেখছিল। এ সময় তার দাদা-দাদি কেউ বাড়িতে ছিলেন না।

এ সুযোগে প্রতিবেশী উপজেলার রুদ্রবাড়িয়া গ্রামের মজিদ শেখের ছেলে ফজল ও তার ছোট ভাই নয়ন ঘরে ঢুকে তার মেয়েকে গণধর্ষণ করে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ ধর্ষক দুই ভাইকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠায়। এই মামলায় ধর্ষক দুই ভাইয়ের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেছে পুলিশ।

তিনি আরো জানান, বর্তমানে আসামিপক্ষের লোকজন মামলা তুলে নেওয়ার জন্য নানা ভাবে হুমকি দিচ্ছে। তাদের ভয়ে মেয়েটিকে গ্রামের বাড়ি থেকে ঢাকায় নেওয়া হয়েছে। এঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে থানায় আরেকটি জিডি করা হয়েছে।

তাই ধর্ষণ মামলা থেকে বাঁচতে আসামিপক্ষের লোকজন তার বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করেছে। একারনে তিনি প্রতিপক্ষের হয়রানী থেকে বাঁচতে এবং মেয়ের ধর্ষণকারীদের দ্রুত ফাঁসির রায় কার্যকর করার দাবিতে পোস্টারগুলো তিনি বগুড়া জেলার আদালত প্রাঙ্গণসহ জেলা ও উপজেলার বিভিন্ন স্থানে লাগিয়েছেন। তিনি তার মেয়ের ধর্ষকদের ফাঁসির দাবি করেন।

ধুনট থানার ওসি কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, শুনেছি একাই পোষ্টার নিয়ে প্রতিবাদ করছেন। এঘটনায় আসামীদের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জসীট দাখিল করা হয়েছে। আসামীরা বর্তমানে কারাগারে রয়েছে। তবে ধর্ষণ মামলার বাদীকে হুমকির বিষয়টি জিডি করা হলে তদন্ত করা হচ্ছে।