ডেস্ক : ইউরোর সংবাদ সম্মেলনে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো কোকাকোলা্র বোতল সরিয়ে রেখেছিলেন। তাতেই হুলস্থুল পড়ে যায় গোটা বিশ্বে। শেয়ারবাজারে বিশাল ধ্বস নামে কোকাকোলার। এবার ইউরোর আরেকটি পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান হেইনিকেনের বোতল সরিয়ে রাখলেন ফ্রান্সের তারকা ফুটবলার পল পগবা।
কোম্পানিটি মূলত অ্যালকোহলের। মুসলিম এই ফুটবলার মদ/অ্যালকোহলে নিরুৎসাহিত করতেই এমন কাজ করেছেন বলে সবাই ধারণা করছেন।

পর্তুগিজ সুপারস্টার ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো সংবাদ সম্মেলনে হাজির হয়ে কোমল পানীয় কোকাকোলার বোতল বিরক্তিভরে সরিয়ে দেয়ায় সর্বনাশ হয়েছে কোমল পানীয়ের প্রতিষ্ঠানটির। ওই ঘটনার পর মাত্র আধঘণ্টার মধ্যে অবিশ্বাস্যভাবে কোকাকোলার ব্র্যান্ড দর কমে গেছে ৪০০ কোটি ডলার।
বিষয়টি নিয়ে যখন বিশ্বব্যাপী আলোচনার ঝড় বইছে তখনই একইরকম কাণ্ড ঘটালেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের ফরাসি তারকা পল পগবা।

এবার তিনি বিরক্তিভরে সরালেন বিয়ারের বোতল। মঙ্গলবার রাতে শক্তিশালী জার্মানিকে ১-০ গোলে হারিয়েছে ফ্রান্স। যেখানে দুর্দান্ত খেলে ম্যাচসেরার পুরস্কারটা পল পগবার হাতে উঠেছে।

এরপর ম্যাচ জয়ের প্রতিক্রিয়া জানাতে সংবাদ সম্মেলনে আসেন পগবা। এসেই টেবিলে রাখা হাইনেকেন বিয়ারের বোতলটি সরিয়ে দেন সামনে থেকে।

কোকাকোলাকে না বলার পেছনে রোনাল্ডো স্বাস্থ্য সচেতনতার বিষয়টি সামনে এনে বিশুদ্ধ পানি পানে উদ্বুদ্ধ করেছেন। তবে পল পগবার বিষয়টিতে ধর্মীয় আবেগ ও অনুশাসন জড়িত।

ব্যক্তিগত জীবনে পগবা বেশ ধার্মিক। ২০১৮ বিশ্বকাপের ঠিক আগে ওমরাহ পালন করে গিয়েছিলেন বিশ্বজয়ের মিশনে। জয়ের পর দলের বিয়ার-শ্যাম্পেনের উৎসবে তাকে দেখা যায় না তেমন। ইসলামের অনুশাসন মেনে এসব পানীয় থেকে দূরে থাকেন তিনি। সেই আবেগ থেকেই কাজটি করেছেন ফ্রান্সের এই তারকা মিডফিল্ডার। তবে বিষয়টি নিয়ে ইতোমধ্যে সমালোচনা শুরু হয়েছে। কারণ ম্যাচসেরার পুরস্কারের সংবাদ সম্মেলনের স্পনসরে ছিল সেই হাইনেকেনের বিয়ারই।
উয়েফা ও ইউরোর অন্যতম বড় স্পনসর এই প্রতিষ্ঠানটি। ফলে ঘটনার পর থেকেই বিতর্ক তুঙ্গে। এদিকে পগবার ঘটনার পর কোকাকোলার মতো হাইনেকেন বিয়ারই একই ধরণের ক্ষতির মুখে পড়তে যাচ্ছে বলে মত বিশেষজ্ঞদের।