নোতুন খবর.কম : দেশের সামাজিক উন্নয়নে প্রতিটি ক্ষেত্রে কাজ করে যাচ্ছে বর্তমান সরকার। প্রধানমন্ত্রীর কাছে গোপালগঞ্জ বগুড়া বলে কথা নেই। তিনি দেশের সকল স্থানে সমান ভাবে নাগরিক ও সামজিক উন্নয়নে কাজ করছেন। দেশের সকল স্থানে তিনি নাগরিক উন্নয়নে প্রকল্প গ্রহন করে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তুলতে এগিয়ে যাচ্ছেন। শনিবার রাতে বগুড়া সদরের ইসলামপুর (কৃষ্ণপুর) দারুল উলুম মাদ্রাসায় বার্ষিক ইসলামী জালসায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আবু সুফিয়ান সফিক এসব কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, বগুড়া সদরের প্রতিটি পাড়ায় মহল্লায় সকল প্রকার নাগরিক সমস্যা সমাধান করা হবে। সদরের প্রতিটি এলাকায় উন্নয়ন করা হবে। প্রতিটি এলাকায় রাস্তাঘাট ড্রেন নির্মাণ করা হবে। মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাপনে সকল ব্যবস্থা গ্রহনে কাজ করা হবে বলেও তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। ইসলামপুর (কৃষ্ণপুর) দারুল উলুম মাদ্রাসায় বার্ষিক ইসলামী জালসায় বগুড়া সদরের এরুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল লতিফ মন্ডল সভাপতিত্ব করেন। বার্ষিক ইসলামী জালসা কমিটির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব রবিউল আলম ও আলহাজ্ব রফিকুল ইসলামের সার্বিক সহযোগিতায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট সমাজ সেবক ও ফাহিম এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী রাশেদুর ইসলাম, শিকারপুর ডিইউ আলিম মাদ্রাসার সভাপতি রবিউল ইসলাম লিটন। মাদ্রাসার মোহতামিম মাওঃ ফেরদাউস আলমের পরিচালনায় প্রধান বক্তা ছিলেন সিরাজগঞ্জের খ্যাতি সম্পন্ন তাফসির কারক মাওঃ হেদায়েতুল্লাহ নুরী, দ্বিতীয় বক্তা ছিলেন উত্তরবঙ্গের খ্যাতি সম্পন্ন মোফাচ্ছেরে কোরআন, গবেষক ও লেখক বগুড়া কারবালা মাদ্রাসার মুহাদ্দিস আলহাজ্ব মাওঃ কাজী ফজলুল করিম। বার্ষিক ইসলামী জালসায় ইসলামপুর (কৃষ্ণপুর) দারুল উলুম মাদ্রাসার ১১জন হাফেজ ছাত্রকে ফজিলতের পাগড়ি পড়িয়ে দেন প্রধান বক্তা মাওঃ হেদায়েতুল্লাহ নুরী।