ডেস্ক : ভারতে এক বৃদ্ধার শরীরের অস্বাভাবিক গড়নের জন্য তাকে ডাইনি অপবাদ দিয়ে গৃহবন্দি করে রাখার অভিযোগ উঠেছে এলাকাবাসীর বিরুদ্ধে। ওড়িষ্যার গঞ্জাম এলাকার ওই বৃদ্ধার দুই হাতে মোট ১২টি এবং দুই পায়ে মোট ২০টি আঙ্গুল রয়েছে। খবর ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া। নায়ক কুমারী নামের ওই বৃদ্ধার দুই হাতে মোট ১২টি এবং দুই পায়ে মোট ২০টি আঙ্গুল
নায়ক কুমারী নামের ওই বৃদ্ধা জানান, শরীরের এমন অস্বাভাবিকতা নিয়েই তার জন্ম হয়েছে। কিন্তু তার পরিবার আর্থিকভাবে অস্বচ্ছল হওয়ায় কোন চিকিৎসা করানো সম্ভব হয়নি।
৬৩ বছর বয়সী ওই বৃদ্ধা আরো জানান, এলাকার বাসিন্দারা কুসংস্কারাচ্ছন্ন হয়ে তাকে ডাইনি মনে করে এবং তাকে এক ঘরে করে রেখেছে। এছাড়া তিনি নিজেও সবসময় মানুষজন থেকে আড়ালে লুকিয়ে থাকেন।
এ বিষয়ে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ডা. পিনাকী মোহান্তি জানান, একজন মানুষের হাতে ও পায়ে এতগুলো আঙ্গুল থাকা খুবই বিরল। পৃথিবীতে প্রতি পাঁচ হাজার মানুষের মধ্যে শুধু ১ থেকে ২ জন অতিরিক্ত আঙ্গুল নিয়ে জন্মায়। সে হিসাবে ওই বৃদ্ধার এতগুলো আঙ্গুল খুবই বিরল ঘটনা