ডেস্ক : বুধবার টাইব্রেকারে কলম্বিয়াকে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছে আর্জেন্টিনা। ম্যাচের নির্ধারিত ৯০ মিনিটে ১-১ গোলে ড্র থাকে দুই দল। ফলে ম্যাচটি টাইব্রেকারে গড়ায়। টাইব্রেকারে আর্জেন্টিনা ৩-২ গোলে কলম্বিয়াকে হারিয়ে কোপা আমেরিকার ফাইনালে পৌঁছে যায়।
১৪ বছর পর কোপার ফাইনালে বহু আকাঙ্ক্ষিত ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা দ্বৈরথের স্বপ্ন সত্যি হল। এবার মেসি-নেইমার দ্বৈরথ দেখার অপেক্ষা। রোববার কোপার ফাইনালে মুখোমুখি হবে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দী ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা।

সর্বশেষ ২০০৭ সালে আর্জেন্টিনা খেলেছিল ব্রাজিলের বিপক্ষে। সে ম্যাচে আর্জেন্টিনা হেরেছিল ৩-০ গোলে। কোপা আমেরিকায় সাম্প্রতিককালে দুই দলের দ্বৈরথেও আর্জেন্টিনা খুব ভালো অবস্থানে নেই। দুই দলের লড়াইয়ে সর্বশেষবার আর্জেন্টিনা যখন জিতেছিল, মেসি তখন রীতিমতো হাঁটি হাঁটি পা পা করছেন। সেটা ১৯৯১ সালের ঘটনা। সেবার ডিয়েগো ম্যারাডোনার আর্জেন্টিনা জিতেছিল ৩-২ গোলে। এরপর থেকে আর্জেন্টিনা তাদের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের বিপক্ষে খেলেছে আরও ছয়বার, জেতেনি একবারও। ফাইনালে শিরোপা খরা মেটাতে হলে কাটাতে হবে সেই খরা।

পরিসংখ্যান অনুযায়ী ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা ১১০ টি খেলায় মুখোমুখ হয়েছে। এরমধ্যে ব্রাজিল জয়ী হয়েছে ৪৮টিতে, আর্জেন্টিনা জয়ী হয়েছে ৩৪ টিতে ড্র হয়েছে ২৫ ম্যাচ।
এরমধ্যে কোপা আমেরিকায় বেশি জয় পেয়েছে আর্জেন্টিনা। তারা জিতেছে ১৫টি খেলায়, ৮টি খেলা ড্র হয়েছে এবং ৯টি জিতেছে ব্রাজিল।
দল দুইটির মধ্যে এখন পর্যন্ত ৫০টি প্রদর্শনী খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর মধ্যে ১৯টি জিতেছে ব্রাজিল, ১৯টি জিতেছে আর্জেন্টিনা এবং ড্র হয়েছে ১৪টি।